বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

যৌন হয়রানির অভিযোগে ঢাবি শিক্ষক বহিষ্কার

 

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার: ছাত্রীদের যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষককে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট কমিটি। বহিষ্কৃত ওই শিক্ষকের নাম অধ্যাপক সাহাদাৎ হোসেন। গত সোমবার রাতে সিন্ডিকেট সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ওই শিক্ষককে বহিষ্কার করা হয় বলে জানা গেছে। গত বছরের জুন মাসে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠে বলে জানায় সিন্ডিকেট কমিটি। 

সিন্ডিকেট সদস্য ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান জানান, গত বছরের জুনে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করে বিভাগের দুই ছাত্রী। পরে এ বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়। দীর্ঘ দিন তদন্ত করার পর তদন্ত কমিটি ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনিত যৌন হয়রানির অভিযোগের সত্যতার প্রমাণ পেয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে গতকালের সিন্ডিকেট সভায় সবার সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাকে বহিষ্কার করা হয়। 

সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৭ জুন সমাজবিজ্ঞান বিভাগের দুই ছাত্রী অধ্যাপক সাহাদাতের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন। বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের নিকটস্থ হলে তিনি তদন্তের নির্দেশ দেন এবং ওই শিক্ষককে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানো হয়। অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী নির্যাতনবিরোধী সেলকে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে তখন অধ্যাপক সাহাদাৎ বিভিন্ন গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ, আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যই এ ধরনের অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি বলেন, আমার প্রফেশনাল অর্জনে অনেকেই ঈর্ষান্বিত। এ কারণে বিভাগ থেকে পাস করে যাওয়া প্রাক্তন দুই শিক্ষার্থীকে দিয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ