রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

রাবিতে নিজ কর্মীর মাথা ফাটালো রাবি ছাত্রলীগ নেতা

রাবি রিপোর্টার : নারী ঘটিত পূর্বশত্রুতার জের ধরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে রাশেদুল ইসলাম রাশেদ নামের দলীয় কর্মীকে বেধড়ক পিটিয়ে মাথা ফাটিয়েছে সারওয়ার ইসলাম নামের এক ছাত্রলীগ নেতা। বুধবার বেলা ১১টা দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ কলা ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল চিকিৎসা কেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
হামলার শিকার রাশেদুল ইসলাম রাশেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের কর্মী। সে বিগত কমিটির পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মুস্তাকিম বিল্লাহ অনুসারী ছিল। হামলাকারী ছাত্রলীগ নেতা সারওয়ার বর্তমান সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার অনুসারী ও ভূগোল-পরিবেশবিদ্যা বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বন্ধুদের সাথে শহীদুল্লাহ কলা ভবনের সামনে রজবের চায়ের দোকানে আড্ডার দিচ্ছিল রাশেদসহ চার-পাঁচজন বন্ধু। এসময় মোটরসাইকেলে করে এসে সারওয়ারসহ ৪/৫ জন রাশেদের উপর অকস্মিক হামলা করে। লাঠি ও চেয়ার দিয়ে মাথায় সহ শরীরে এলোপাথাড়ি মারধর করতে থাকে। এক পর্যায়ে রাশেদ আত্মরক্ষার্থে দৌড়ে শহীদুল্লাহ কলা ভবনের ইসলামের ইতিহাস বিভাগে ভিতরে প্রবেশ করলে হামলাকারীরা ফিরে যায়। পরে সহ-পাঠিরা গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে তাকে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে নিয়ে যায়। আহত রাশেদ বলেন, আমি বিগত কমিটির পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাকিম বিল্লাহ ভাইয়ের রজনীতি করতাম, সেই সময় সারওয়ারের সাথে একটা বিষয় নিয়ে ঝামেলা হয়েছিল। কিন্তু আজ কোন কথা-বার্তা ছাড়াই সারওয়ারসহ কয়েকজন মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে আমায়। এ ব্যাপারে ছাত্রলীগের সাওয়ারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘আমি একটি মিটিংয়ে ছিলাম, এই জন্য এ ব্যাপারে কিছুই জানিনা। খোঁজ নিয়ে পরে জানাচ্ছি।’ প্রক্টর প্রফেসর মজিবুল হক আজাদ খান  বলেন, ‘মারধরের ঘটনা শুনেছি। কোন ধরনের বিশৃংঙ্খলা  হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ