শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

না.গঞ্জের ডিসির হাইকোর্টে হাজিরা

স্টাফ রিপোর্টার: আদালত অবমাননার হাইকোর্টে হাজিরা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. রাব্বী মিয়া। তবে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সোনারগাঁয়ে অর্থনৈতিক অঞ্চলের ২৩৫০ বিঘা কৃষি জমি, জলাভূমি ও নিচু জমি ভরাটের বিষয়ে তার দেয়া ব্যাখ্যার ওপর শুনানির জন্য আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও আশিষ রঞ্জন দাস সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ নারায়ণগঞ্জের ডিসিকে তলব করেন। নির্দেশ অনুযায়ী গতকাল বুধবার সকালে ব্যাখ্যা দিতে হাইকোর্টে হাজির হন ডিসি মো. রাব্বী মিয়া। তবে আদঅলত না বসায় এ বিষয়ে মুনানি হয়নি।

আদালতে ডিসির পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আব্দুল বাসেত মজুমদার। 

জানা গেছে, সোনারগাঁও উপজেলায় ছয়টি মৌজায় কৃষি জমি, নিচু জমি ভরাট করে ইউনিক প্রপার্টিজ সোনারগাঁও রিসোর্ট সিটি নির্মাণের কাজ শুরু করে। এর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) রিট করে। ২০১৪ সালের ২ মে হাইকোর্ট রুল জারি করে। একইসঙ্গে সোনারগাঁও রিসোর্ট সিটি নির্মাণের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেন। যে অংশ ভরাট করা হয়েছে তা পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেন। রুলে সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের পিরোজপুর, জেনপুর, ছয়হিস্যা, চরভাবানাথপুর, ভাটিবান্ধা ও রতনপুর মৌজার কৃষি জমি, জলাভূমি, নিচু ভূমি রক্ষায় কেন নির্দেশ দেয়া হবে না, তা জানতে চান হাইকোর্ট।

২০১৬ সালে ইউনিক হোটেল এন্ড রিসোর্ট লিমিটেডের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রকল্পের ওপর দেয়া নিষেধাজ্ঞার আদেশ সংশোধন করে দেন হাইকোর্ট। ওই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করলে আদালত সেটি স্থগিত করে দেন। একইসঙ্গে হাইকোর্টে বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দেন। বিষয় নিষ্পত্তি না করেই আবারও প্রতিষ্ঠানটি মাটি ভরাট শুরু করে। এর প্রেক্ষিতে আদালত অবমাননার আবেদন করা হলে ডিসিকে তলব করেন আদালত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ