শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি বোঝার জন্যই এই বৈঠক

গতকাল বুধবার গুলশানস্থ চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া স্টিফেন ব্লুম বার্নিকাট -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি বোঝার জন্য ধারাবাহিক আলোচনার অংশ হিসেবে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্টদূত মার্সিয়া স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাট। তিনি বলেন, রাজনীতিবিদদের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত থাকবে। 

গতকাল বুধবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা বলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত। তবে বিএনপি নেতারা এবিষয়ে কোন কথা বলেননি। 

বার্নিকাট বলেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে দেখা করা এবং চলমান পরিস্থিতি অনুধাবন করা একজন রাষ্ট্রদূত হিসেবে এটা আমার দায়িত্ব। কিছুদিন আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। এরই ধারাবাহিতায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। ভবিষ্যতেও অন্য রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের সঙ্গেও আলোচনা অব্যাহত রাখবো। 

প্রায় ২ ঘণ্টার বৈঠকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন, নির্বাচনকালীন সরকার, নির্বাচন কমিশন নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া খালেদা জিয়া ও দলের শীর্ষ নেতাদের মামলার বিষয়ে কথা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এর আগে বিকেল পৌনে ৫টায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান ও বার্নিকাটের সঙ্গে আগত দুই কর্মকর্তা।

 বৈঠকের পর বার্ণিকাট এক বিবৃতিতে বলেন, সম্প্রতি আমি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেছি। এর ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। 

সাধারণভাবে আমরা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। ভবিষ্যতেও আমি অন্যান্য রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রাখবো। 

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের দায়িত্ব নেয়ার পর খালেদা জিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতের এটি হচ্ছে প্রথম বৈঠক। এর আগে ২০১৬ সালের ২৫ জানুয়ারি মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপার্সননের সর্বশেষ বৈঠক হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ