সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

জাপানের পাশে থাকার আশ্বাস ট্রাম্পের

১২ ফেব্রুয়ারি, বিবিসি : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জাপানকে শতভাগ সমর্থনের আশ্বাস দিয়েছেন। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র সফর করছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। এর মধ্যে আজ রোববার উত্তর কোরিয়া জাপান সাগরের দিকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ট্রাম্প জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে এ আশ্বাস দেন।আবে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণকে ‘একেবারে অসহনীয়’ বলে মন্তব্য করেন। তবে জাপান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি তাদের জলসীমায় পৌঁছেনি। আজ বিবিসির খবরে এ তথ্য জানানো হয়।এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে আবে জানান, ট্রাম্প আশ্বাস দিয়েছেন যে দুই দেশের মধ্যকার সহযোগিতা আরও জোরদার করা হবে। আজ স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ৫৫ মিনিটে নর্থ পিয়ংইয়ং প্রদেশের বাঙ্গিয়ুন বিমানঘাঁটি থেকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রটি উৎক্ষেপণ করা হয়। জানুয়ারিতে খ্রিষ্টীয় নববর্ষ উপলক্ষে দেওয়া এক বার্তায় উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন বলেছিলেন, তাঁর দেশ পরমাণু যুদ্ধাস্ত্রবাহী আন্তমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের (আইসিবিএম) পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের দ্বারপ্রান্তে; যা যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে সক্ষম হবে।
আজ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের পরপরই প্রতিবেশী দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বারবার এ ধরনের উসকানি দেওয়ার মধ্য দিয়ে পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়নে কিম জং উনের শাসনের অযৌক্তিকতা ও উন্মাদনাই ফুটে ওঠে।
জাপানের প্রধান মন্ত্রিপরিষদ সচিব নিশ্চিত করেছেন যে ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের জলসীমায় আসেনি। তবে এ ঘটনায় উত্তর কোরিয়াকে টোকিও ‘কড়া প্রতিবাদ’ জানাবে।
পরমাণু ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জেরে ২০০৬ সাল থেকে উত্তর কোরিয়ার ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। গত ৯ সেপ্টেম্বর পিয়ংইয়ং পঞ্চম ও এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় পরীক্ষা চালানোর পর গত ডিসেম্বরে এই নিষেধাজ্ঞা আরও কঠোর করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ