বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

মুক্তিযোদ্ধার বয়স ১৩ নির্ধারণ কেন অবৈধ নয়

স্টাফ রিপোর্টার : মুক্তিযোদ্ধার বয়স ন্যূনতম ১৩ বছর নির্ধারণ করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের সচিব, জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, গাজীপুর জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টদেরকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এক রিট আবদনের প্রাথমকি শুনানি শেষে গতকাল বুধবার বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ড. ইউনূছ আলী আকন্দ। অন্যদিকে সরকার পক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস। ইউনূছ আলী আকন্দ জানান, গত ১০ নবেম্বর মুক্তিযোদ্ধার সংজ্ঞা ও বয়স নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়। ওই ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গাজীপুরের তিন মুক্তিযোদ্ধা এইচ এম কামরুজ্জামান, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ কায়সার ও শেখ আজিজুল হক হাইকার্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট করেন। ওই রিটের শুনানি শেষে আদালত এ আদেশ দেন। মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপনের ২নং ধারায় বলা হয়েছে, মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে নতুন অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার বয়স ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ তারিখে ন্যূনতম ১৩ বছর হতে হবে। কিন্তু এর আগে অনেক ব্যক্তি ৪ থেকে ৫ বছর বয়সেও মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। এখন দাবি উঠছে নতুন করে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার ক্ষেত্রে ১৩ বছর বাতিল করে কমপক্ষে ১৫ বছর করতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ