বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইয়ে দিঘলিয়া উপজেলায় বাদ পড়েছেন ৫৭ জন

খুলনা অফিস : খুলনার দিঘলিয়া উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই শেষ হয়েছে। তালিকায় নাম রয়েছে ১০৬ জন, বাদ পড়েছে ৫৭ জন এবং ১৫ জনকে জেলায় যাচাই-বাছাইয়ের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটি সূত্রে জানা যায়, দিঘলিয়া উপজেলায় তালিকাভুক্ত পুরাতন মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ছিল ১১৮ জন, নতুনভাবে অন-লাইনের মাধ্যমে আবেদন করেছে ৪৫ জন এবং সরাসরি আবেদন করেছে ১২ জন। মোট যাচাই-বাছাই সংখ্যা ছিল ১৭৫ জন।
 পুরাতন ১১৮ জনের মধ্যে ৪২ জন মুক্তিবার্তা লাল তালিকা ভুক্ত হওয়ায় তাদের যাচাই-বাছাই প্রয়োজন হয়নি। বাকিদের মধ্যে থেকে ৫৯ জন যাচাই-বাছাইতে টিকেছে। নতুন ৫৭ জন থেকে মাত্র ৫ জন যাচাই-বাছাইতে টিকছে এবং ১৫ জন দিঘলিয়া উপজেলায় যুদ্ধ না করায় তাদেরকে জেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির নিকট পাঠানো হয়েছে বলে জানা যায়। যাচাই-বাছাইতে যে সকল মুক্তিযোদ্ধারা টিকেছে তাদের ও যারা বাদ পড়েছে তাদের উভয় তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সাত সদস্যদের কমিটিতে ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও যাচাই-বাছাই কমিটির সভাপতি সরদার মাহাবুবুর রহমান, সদস্য সচিব উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রহমান, সদস্য জেলা সহকারী কমান্ডার কাজী আহম্মদ আলী, গাজী আজগর আলী, মো. রেজাউল হক, মো. গোলাম রসুল, মো. হালিম ফকির।
দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রহমান জানান, যে সকল আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ পড়েছে তারা তালিকা প্রকাশের দিন থেকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল জামুকায় আপিল করতে পারবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ