সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

রাশিয়ার ওপর ওবামার দেয়া কিছু নিষেধাজ্ঞা বাতিল করলেন ট্রাম্প

৩ ফেবব্রুয়ারি, ইউএসএ টুডে : যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগে রাশিয়ার ওপর জারি করা সদ্য বিদায়ী ওবামা প্রশাসনের কয়েকটি অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। গত বৃহস্পতিবার দেশটির ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিসকে সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ক কয়েকটি লেনদেনের অনুমতি দেয়। যদিও ট্রাম্প প্রশাসন এটাকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হিসেবে মানতে রাজি নয়। হোয়াইট হাউসের দাবি, এই পরিবর্তন জটিল নীতির রুটিন ওয়ার্ক।
বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ওবামা প্রশাসনের জারি করা এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় রাশিয়ার সন্দেহজনক কর্মকা-ের জন্য যুক্তরাষ্টের রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা এফএসবির আর্থিক লেনদেন নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। ওবামা নির্বাহী আদেশে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন।
হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র শ্যন স্পাইসার জানিয়েছেন, এর ফলে রাশিয়ার প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের নীতির কোনও পরিবর্তন ঘটছে না। তিনি এটা কে নিয়মিত কর্মকা-ের অংশ হিসেবে উল্লেখ করেন। তবে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।
রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘটনা নিয়ে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কোম্পানি উদ্বেগ প্রকাশ করে জানিয়েছিল, এর ফলে তারা রাশিয়ার কাছে ইলেক্ট্রিক পণ্য বিক্রি করতে পারবে না। রাশিয়ায় এনক্রিপশন টেকনোলজি আমদানি নিয়ন্ত্রণ করে এফএসবি।
হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এই ঘটনাকে রাশিয়ার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার ও নীতির পরিবর্তন নয় দাবি করলেও এফসবির সাবেক পরিচালক ও রুশ সংসদ ডুমার সদস্য নিকোলাই কভালিয়ভ মনে করেন, ওয়াশিংটন ও মস্কোর সম্পর্ক উন্নতির লক্ষ্মণ। তিনি বলেন, এই ঘটনা প্রমাণ করে সন্ত্রাসবাদবিরোধী যৌথ কাজ আসলে শুরু হচ্ছে। এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার ছাড়া পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব নয়। ট্রাম্প প্রশাসনের এ নিষেধাজ্ঞার সমালোচনা হচ্ছে রিপাবলিকান শিবির থেকে। রিপাবলিকান সিনেটর জনক ম্যাককেইন ও লিন্ডসে গ্রাহাম রাশিয়ার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করে আরও কঠোর করার দাবি জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ