সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

চারঘাটে বহুমাত্রিক ফসল চাষে দিন দিন আগ্রহী হচ্ছে চাষিরা

চারঘাট (রাজশাহী) সংবাদদাতা : বহুমাত্রিক ফসল চাষে দিন দিন আগ্রহী চাষি ও চাষের পরিমাণ বাড়ছে। পরিমিত জমি থেকে কাক্সিক্ষত ফসল পেয়ে স্বাবলম্বী হয়ে উঠছে উপজেলার হাজারো কৃষক। একই জমিতে একসঙ্গে একাধিক ফসল চাষকে বলা হয় বহুমাত্রিক ফলস চাষ।
চারঘাট উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ও ১টি পৌরসভার অধিকাংশ জমি তিন ফসলি। এসব জমি থেকে আরো বেশি বেশি ফসল লাভের কৌশল হিসেবে চাষিরা বহুমাত্রিক ফসল চাষ শুরু করেছেন। অনুকূল আবহাওয়া, প্রয়োজনীয় সার-কীটনাশকের সরবরাহ আর কৃষি বিভাগের পরামর্শের কারণে দারুণভাবে লাভবান হচ্ছেন সংশ্লিষ্ট কৃষক। এসব গ্রামের প্রায় ৫ হাজার একর জমিতে বহুমাত্রিক পদ্ধতিতে ফসল চাষ হচ্ছে। এর সঙ্গে জড়িত হাজারো কৃষক এখন স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছেন। বহুমাত্রিক ফসলের চাষে সফলতার বিষয়টি এখন উপজেলা থেকে জেলা পর্যন্ত ছড়িয়ে পরেছে। মোক্তারপুর গ্রামের কৃষক মুনসুর রহমান বলেন, আমার দুই একর চাষের জমি থেকে আগে যে ফসল পেতাম তা দিয়ে সংসার চলে যেতো। এখন বহুমাত্রিক পদ্ধতিতে ফসল চাষের ফলে প্রতি বছরেই আমার অনেক সঞ্চয় হচ্ছে। নন্দগাছী গ্রামের কৃষক আব্দুল মতালেব বলেন, আমার মাঠের জমিতে শুধু বিনা হালে রসুন চাষ হতো। এখন সেই জমিতে রসুনের সঙ্গে আখ চাষ করছি। আগে রসুন অথবা আখ যে কোনো একটি ফসল করতাম। ফলে আমার বাড়তি আয় হচ্ছে। চারঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু জাফর মোহাম্মদ সাদেক বলেন, চারঘাট উপজেলায় এবার বহুমাত্রিক ফসল চাষের সফলতা নতুন মাত্রা যোগ করবে। আর্থিকভাবে লাভবান হবে এ এলাকার কৃষক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ