সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

একমাত্র টেস্ট খেলতে আজ ভারত যাচ্ছে মুশফিকরা

স্পোর্টস রিপোর্টার : প্রথমবারের মতো ভারতের মাটিতে টেস্ট ম্যাচ খেলতে আজ ঢাকা ছাড়বেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। আজ সকাল ১১টায় ভারতের উদ্দেশে রওয়ানা হবে মুশফিকরা। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি হায়দরাবাদে শুরু হবে এই ঐতিহাসিক টেস্টটি। তার আগে সেখানে ভারতীয় এ দলের বিপক্ষে দুই দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি। গতকাল সংবাদ সম্মেলন করে এই দল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ১৫ সদস্যের দলে নেই পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ইনজুরি থেকে পুরোপুরি সেরে উঠতে না পারায় তাকে দলে রাখা হয়নি। তবে চোট কাটিয়ে দলে ফিরেছেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ফিরেছেন ইমরুল কায়েস ও মুমিনুল হক সৌরভ। নিউজিল্যান্ড সফরের মাঝপথে ইনজুরি নিয়ে আগেভাগে দেশে ফিরেছিলেন টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, ওপেনার ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস ও মুমিনুল হক সৌরভ। সেই চোট কাটিয়ে উঠায় ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট খেলতে ডাক পেয়েছেন তারা। 

এছাড়া চোটের কারণে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে না থাকলেও চোট কাটিয়ে ফিরেছেন লিটন কুমার।  তিনি সর্বশেষ খেলেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। একইভাবে শফিউল শারীরিকভাবে সুস্থ হয়ে উঠায় এই সফরে ডাক পেয়েছেন। তিনি নিউজিল্যান্ড সফরেও ছিলেন।  কিন্তু চোটের কারণে দল থেকে বাদ পড়ায় তার জায়গায় খেলেছেন রুবেল হোসেন। কিন্তু পেসার রুবেল হোসেনও বাদ পড়েছেন ভারত সফরে। এছাড়া বাদ পড়েছেন ক্রাইস্টচার্চ  স্কোয়াডে থাকা নাজমুল হোসেন শান্ত, মুস্তাফিজুর রহমান, নুরুল হাসান সোহান ও রুবেল  হোসেন। নিউজিল্যান্ড সফরের টেস্ট দলে থাকা ব্যাটসম্যান কাম উইকেটরক্ষক নুরুল হাসান সেহান বাদ পড়ায় তার জায়গায়  খেলবেন লিটন কুমার দাস। ভারত সফরকে সামনে রেখে গতকাল বুধবার শেষবারের মতো অনুশীলন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ-ভারত একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। ভেন্যু হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম। এর আগে ৫ ও ৬ ফেব্রুয়ারি স্বাগতিক ‘এ’ দলের বিপক্ষে দুই দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল। দলের ব্যাটিং শক্তি বাড়াতেই নুরুলকে বাদ দিয়ে লিটনকে সুযোগ করে দিয়েছেন নির্বাচকরা। নুরুলের চেয়ে ব্যাটিং দক্ষতায় এগিয়ে থাকায় ভারতের বিপক্ষে লিটনকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। লিটনকে দলে নেয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘লিটনকে আমরা নূরুল হাসান সোহানের জায়গায় নিয়েছি। লিটন ইংল্যান্ড সিরিজের আগ থেকেই আমাদের বিবেচনায় ছিল। মাঝখানে সে ইনজুরিতে ছিল অনেক দিন, চোট থেকে ফেরার পর ফর্মের ঘাটতি ছিল। বিসিএলে একটা ডাবল সেঞ্চুরিও পেয়েছে। উপমহাদেশের উইকেটে খেলার চিন্তা থেকেই তাকে দলে নেওয়া। যদিও সোহান আমাদের চিন্তার বাইরে চলে যায়নি।’ উইকেটরক্ষক হিসেবে ইতিমধ্যেই নাম কুড়িয়েছেন নুরুল হাসান। ব্যাটিং গভীরতায় কিছুটা ঘাটতি থাকলেও প্রতিভাবান খেলোয়াড় হিসেবেই নির্বাচকদের চোখে আছেন তিনি। প্রধান নির্বাচক বলেন,‘অবশ্যই সোহান ভালো উইকেটরক্ষক। 

এখানে আমরা ব্যাটিংয়ে বেশি চিন্তা ভাবনা করেছি। ভারতের উইকেটে ব্যাটসম্যানদের কঠিন পরীক্ষায় পড়তে হয়। আমরা এখানে ব্যাটিংকে প্রাধান্য দিয়েছি একটু বেশি।’ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ক্রাইস্টচার্চে ইনজুরির কারণে ওই ম্যাচগুলোতে মুশফিক খেলতে পারেননি, যার প্রভাব দলের মিডল অর্ডারে পড়েছে। প্রধান নির্বাচক বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, ‘মুশফিকের ব্যাটিং থেকে সাহায্য না পেলে দল অনেক দুর্বল হয়ে যায়। সেই সব বিষয় চিন্তা করে ব্যাটিং শক্তি বাড়াতেই লিটনকে দলে নেওয়া।’ বিপিএলে ইনজুরিতে পড়ে জাতীয় দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন শফিউল ইসলাম। যার কারণে খেলা হয়নি নিউজিল্যান্ড সিরিজ। তবে ইনজুরি কাটিয়ে ফেরায় ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে রুবেল  হোসেনের জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন তিনি। বিপিএলের চতুর্থ আসরটা দুর্দান্ত কেটেছে শফিউলের। এমন পারফরম্যান্সের পর খুব স্বাভাবিকভাবেই নিউজিল্যান্ড সফরের স্কোয়াডে ছিলেন তিনি। কিন্তু বিপিএলের প্রথম  কোয়ালিফাইয়ার ম্যাচে বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিং করতে গিয়ে তিনি ইনজুরিতে পড়লে কপাল খুলেছিল রুবেলের। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড সফরের আগে আমরা যে স্কোয়াড দিয়েছিলাম। সেখানে শফিউল আমাদের প্রথম পছন্দ ছিল। তার ইনজুরিতে রুবেলকে নেওয়া হয়েছিল। যেহেতু শফিউল ফিট আছে, ভালো ফর্মে আছে, সেই চিন্তায় তাকে নেওয়া হয়েছে।’

বাংলাদেশ স্কোয়াড: মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, তাসকিন আহমেদ, কামরুল ইসলাম রাব্বি, মুমিনুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, লিটন কুমার দাস, সাব্বির রহমান, তাইজুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, শুভাশিষ রায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ