শুক্রবার ২০ মে ২০২২
Online Edition

গোদাগাড়ীতে চিকিৎসক পরিচয়ে ছিনতাই আটক ২

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) সংবাদদাতা : রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে চিকিৎসক পরিচয় বাড়িতে ঢুকে ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার বাসুদেবপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতার দুই ছিনতাইকারী হলেন, নওগাঁর মান্দা উপজেলার হাজি গোবিন্দপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে রেজাউল করিম (৩৫) ও একই গ্রামের ময়েজ উদ্দিন শাহ’র ছেলে হাফিজুর রহমান (৩০)। তাদের কাছ থেকে একটি মোটরসাইকেল, একটি তারকাটা প্লাস, একটি কাপড় মাপা টেপ, লুট করে নিয়ে যাওয়া সোনার একটি মাদুলি ও একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গ্রেফতারকৃত দুই ছিনতাইকারী সন্ধ্যায় তারা নিজেদের চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের সিজনা পুলপাড়া গ্রামে আশিয়া বেগম (৫০) নামে এক নারীর বাড়িতে ঢোকেন। এ সময় ওই বাড়িতে আশিয়া ছাড়া অন্য কেউ ছিলেন না। আশিয়া বেগম সম্প্রতি তার চোখে অস্ত্রপচার করেছেন। গ্রেফতারকৃত রেজাউল ও হাফিজুর আশিয়া বেগমকে বলেন, তারা হাসপাতাল থেকে তার চোখ পরীক্ষা করতে এসেছেন। এ সময় তারা ঐ নারীর চোখ ‘পরীক্ষা’ করেন। এরপর তারা আশিয়াকে বলেন, চোখ পরীক্ষার জন্য তার গলা কাপড় মাপা টেপ দিয়ে মাপতে হবে। এ জন্য তার গলায় থাকা সোনার মাদুলি খুলতে হবে। আশিয়া তার মাদুলি খুলে দেন। তারা টেপ দিয়ে আশিয়ার গলা মাপেন। এরপর তারা একই কায়দায় হাত মাপার নামে সোনার বালা খুলতে চান। এতে আশিয়া বেগমের সন্দেহ হলে তিনি চিৎকার দেন। এ সময় রেজাউল ও হাফিজুর ঐ বাড়ি থেকে একটি মোবাইল ফোন ও গলার মাদুলি নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যান। এরপর স্থানীয়রা ফোন করে বিষয়টি পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে তাদের পালিয়ে যাওয়া পথের সামনে অবস্থান নেয় পুলিশ। এরপর মোটরসাইকেল নিয়ে তারা বাসুদেবপুর এলাকায় পুলিশের সামনে গেলে তাদের গতিরোধ করে আটক করা হয়। গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ হিপজুর আলম মুন্সি জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে জব্দ করা মোটরসাইকেলটিও চোরাই বলে মনে হচ্ছে। আটককৃতদের বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ