বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে -ডিআইজি শেখ মারুফ হাসান

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) সংবাদদাতা : মঠবাড়িয়ার ঐতিহ্যবাহী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন কৃতি ছাত্র ও বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান মঠবাড়িয়াকে মাদক মুক্ত ঘোষণার অঙ্গিকার করেছেন। মাদক সেবনকারী ও ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে তিনি বলেন, দেখি আজ থেকে কে মাদক সেবন বা ব্যবসা করে? যদি মাদকের বিষয়ে পুলিশ এর সহায়তা করে তার বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরও বলেন, কষ্টে অর্জিত স্বাধীনতাকে নস্যাৎ করতে দেয়া হবে না। সকল প্রকার সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে পুলিশ জিরো টলারেন্স কাজ করবে। তিনি নিজেকে মঠবাড়িয়ার সন্তান হিসেবে দাবী করে এলাকার উন্নয়নে সকল রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।
স্থানীয় কেএম লতীফ ইনস্টিটিউশনের প্রাক্তন গুনী প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল মজিদ স্যারের সুযোগ্য পুত্র পুলিশের ডিআইজি শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান গতকাল সোমবার সকালে ওই বিদ্যালয় চত্বরে নাগরিক সংবর্ধণায় একথা বলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী। সংবর্ধনা উদযাপন কমিটির আহবায়ক ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বরের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, পিরোজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মহারাজ, জেলা পুলিশ সুপার মো. ওয়ালিদ হোসেন, রাজশাহী রেঞ্জের পুলিশ সুপার নিহার রঞ্জন হালদার, উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার কাজী শাহ নেওয়াজ, সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা, জেলা আ’লীগ নেতা ডা. এম নজরুল ইসলাম, উপজেলা আ’লীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এমাদুল হক খান, সহ-সভাপতি আরিফ-উল-হক, পৌর আ’লীগের সভাপতি আফজাল হোসেন, উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন দুলাল, মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা শাহ আলম দুলাল, পৌর বিএনপি’র সভাপতি কেএম হুমায়ুন কবীর, ডা. সিরাজুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক খলিলুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান মিরাজ মিয়া ও প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান প্রমূখ।
সংবর্ধিত ডিআইজি মারুফ হাসান স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, আমি খুলনার সন্তান হলেও মঠবাড়িয়ার সন্তান হিসেবে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি। কারণ ১৯৭০ সালে আওয়ামীলীগের সাবেক গণপরিষদ সদস্য মরহুম সওগাতুল আলম সগীরের নির্বাচনী প্রচারনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান মঠবাড়িয়ায় এলে ওই সময় চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র হিসেবে তাঁকে আমি মাল্য দান করি। এটা আমার জীবনে সব চেয়ে বড় পাওয়া।
এর আগে ডিআইজি শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান তার  শৈশবের শিক্ষকদের জড়িয়ে ধরে আবেগ-আল্পুত হয়ে পড়েন। পরে বিকেলে  শৈশব বিজড়িত মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ