মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সাংবাদিক পেটানো পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর শাহবাগ থানার সামনে সাংবাদিকদের ওপর পুলিশী নির্যাতনের প্রতিবাদে আয়োজিত সমাবেশে নির্যাতনের সঙ্গে জড়িত পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। অন্যথায় বড় ধরনের আন্দোলনে যাওয়ার হুমকি দেন তারা।
গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকা বিভাগ সাংবাদিক ফোরাম এ প্রতিবাদ সভা এবং মানববন্ধনের আয়োজন করে। সমাবেশে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা হওয়ায় নিন্দা জানানো হয়।
সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান কাজলের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন বিএফইউজে একাংশের মহাসচিব ওমর ফারুক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ডিইউজে একাংশের সভাপতি শাবান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, জাহাঙ্গির আলম প্রধান, প্রেস ক্লাবের নির্বাহী সদস্য কুদ্দুস আফ্রাদ, বিএফইউজের সাবেক মহাসচিব জলিল ভূঁইয়া, মাহমুদুর রহমান খোকন, শাজাহান মিঞা,  মো: আলম হোসেন প্রমুখ।
প্রসঙ্গত, ২৬ জানুয়ারি রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র বাতিলের দাবিতে পালিত হরতাল কর্মসূচিতে এটিএন নিউজের সাংবাদিক ও ক্যামেরাম্যানকে পুলিশ নির্যাতন করে। এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন সাংবাদিক সমাজ। রোববার মুখে কালো কাপড় বেঁধে শাহবাগে প্রতিবাদ করেন সাংবাদিকরা। এরই ধারাবাহিকতায়  গতকাল সোমবার মানববন্ধন করেন সাংবাদিকরা।
ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, দোষীদের বিচার করতে হবে। তিনি এই বিচারের জন্য বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে বলেন, জড়িত পুলিশ সদস্যদের এমন শাস্তি দিন যাতে সাংবাদিক সমাজকে আর রাস্তায় নামতে না হয়। 
গণমাধ্যমকে সরকারের মুখোমুখি দাঁড় না করানোর আহ্বান জানিয়ে সাংবাদিকদের ওপর হামলায় জড়িত পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে শাবান মাহমুদ বলেন, সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালিয়ে গণমাধ্যমকে রাষ্ট্রের মুখোমুখি করতে চায়।
সোহেল হায়দার চৌধুরী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সংযত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সরকার ও প্রশাসন আপনারা  সাংবাদিকদের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়াবেন না। আমরা আপনাদের কর্মকাণ্ডের অনেক খবর জানি, জীবনবৃত্তান্ত জানি। সাংবাদিকরা যদি সিদ্ধান্ত নেন পুলিশের কোনো ইতিবাচক সংবাদ প্রচার করা হবে না, তাহলে আপনারা কোথায় যাবেন? তিনি আরও বলেন, পুলিশ পরিকল্পিতভাবে সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন করছে আর বলা হচ্ছে তদন্ত চলছে, ব্যবস্থা নেয়া হবে। সাংবাদিক সমাজ এসব কথা শুনতে চায় না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ