বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

খেলাফত শাসনব্যবস্থাই চলমান সকল সংকট নিরসনের একমাত্র পথ -খেলাফত আন্দোলন

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান, আমীরে শরীয়ত হাফেজ মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর বলেছেন, ধর্মীয়  রাজনীতিবিদের অভাবে দেশে আজ রাজনৈতিক দুরাবস্থা চলছে, একের প্রতি অপরের অনাস্থা-অবিশ্বাস চরম আকার ধারণ করছে। এ অবস্থা দেশ ও জাতির জন্য চরম হুমকিস্বরূপ। এ জটিল পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে আল্লাহ প্রদত্ত খেলাফত শাসনব্যবস্থাই একমাত্র পথ। কেননা ইনসাফ ভিত্তিক খেলাফত শাসন ব্যবস্থাই পারে সকল ক্ষেত্রে সরকারি-বিরোধীদলের মধ্যে সৌহার্দ্য ও দেশের জনগণের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে। তাছাড়া ধর্মহীন রাজনীতি বা বিধর্মীদের আমদানি করা ফর্মূলা তন্ত্র-মন্ত্রের মাধ্যমে দেশে শান্তি বা জনগণের ন্যায্য অধিকারের আশা করা গাব গাছের নিচে দাঁড়িয়ে আম পাওয়ার আশা করার নামান্তর। সার্চ কমিটিকে পরামর্শ দিয়ে তিনি আরো বলেন, দেশ ও জনগণের শান্তির কথা চিন্তা করে আগামী নির্বাচনে সকল দলের অংশ গ্রহণের লক্ষ্যে নেক, আল্লাহভীরু লোকদের দ্বারা নির্বাচন কমিশন গঠন করে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করুন। অন্যথায় আপনাদেরও হাশরের দিনের মালিক মহান আল্লাহর কাছে জবাব দিতে হবে।
গতকাল সোমবার বিকাল ৩টায় কাকরাইল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে খেলাফত আন্দোলনের ২০১৭-১৮ সেশনের নতুন কমিটির পরিচিতি সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ও ইসলামী চিন্তাবিদগণ উপস্থিত ছিলেন। বক্তব্য রাখেন, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নিজামী, হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরীর আমীর মাওলানা নূর হুসাইন কাসেমী, মজলিস মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, ঐক্য আন্দোলনের আমীর ড. মাওলানা ঈসা শাহেদী, মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, আনিসুর রহমান জিন্নাহ, রোকনুজ্জামান রোকন, হাজী জালালুদ্দীন বকুল, হাফেজ আবু তাহের, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হান্নান আল হাদী, মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা আশরাফুজ্জামান পাহাড়পুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মাওলানা সাঈদুর রহমান, মুফতী সুলতান মহিউদ্দিন, মুফতী আকরাম হুসাইন।
হেফাজত নেতা মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, হযরত হাফেজ্জী হুজুর রহ-এর আহ্বান তওবার রাজনীতিকে জাতির জন্য মহানেয়ামত আখ্যায়িত করে বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে এ আন্দোলনে শরীক হয়ে কাজ করলে একদিন অবশ্যই এ জমিনে নবী-রাসূলদের অনুসরণে ইসলামী হুকুমত কায়েম হবে ইনশাআল্লাহ। তিনি হাইকোর্টের সামনে মূর্তি অপসারণের জন্য আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে বাধ্য করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী বলেন, খেলাফত প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ইসলামী সরকার প্রতিষ্ঠা ছাড়া জনগণের হক্ব তাদের কাছে পৌঁছে দেয়া সম্ভব নয়। তিনি সর্বোচ্চ বিচারালয়ের সামনে নারীমূর্তি স্থাপনের নিন্দা জানান ও তার অপসারণ দাবি করেন।
ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের আমীর ড. ঈসা শাহেদী বলেন, আল্লাহর জমিনে আল্লাহর খেলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলন করা সকলের ঈমানী দায়িত্ব।
স্বাগত বক্তব্যে নবনির্বাচিত মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী বলেন, হযরত হাফেজ্জী হুজুর রহ. ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার পথ সুগম করে গেছেন, এখন আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার কাজ করতে হবে। যতদিন পর্যন্ত কুরআনের শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা না হবে ততদিন পর্যন্ত এর জন্য চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ