বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

বগুড়ায় ধনাঢ্য তিন বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

বগুড়া অফিস : বগুড়ার কাহালুতে ধনাঢ্য তিন হিন্দু বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে কাহালু থানার দুর্গাপুর ইউনিয়নের ধলাহার হিন্দুপাড়ার ভজন চাকী, সাধন চাকী ও রবিন চাকীর বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়। মুখোশ পরা ডাকাতদল তিন বাড়ি থেকে ৩১ ভরি স্বর্ণালংকার, ১৫ ভরি রুপার গহনা এবং নগদ ১২ লাখ টাকা নিয়ে গেছে। এসময় ডাকাতদলের মারপিটে দুইজন আহত হয়েছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ১৫-২০ জনের মুখোশপরা ডাকাতদল ভজন চাকীর বাড়ির প্রধান দরজার তালা কেটে ভিতরে প্রবেশ করে। এরপর ঘরের দরজা ভেঙ্গে ধারালো অস্ত্রের মুখে পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে। একই কায়দায় ডাকাত দল ভজন চাকীর অপর দুই ভাই সাধন চাকী ও রবিন চাকীর বাড়িতে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে আলমারী ভেঙ্গে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, রুপার গহনা ছাড়াও ব্যবহারি মূল্যবান জিনিস পত্র নিয়ে পালিয়ে যায়। লুটপাটে বাধা দিতে গিয়ে ভজন চাকীর স্ত্রী মুক্তি রানী চাকী ও তার ছেলে অনু চাকী ডাকাত দলের সদস্যদের মারপিটে আহত হন। তাদেরকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
কাহালুর দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাসুদ হাসান রঞ্জু জানান, ডাকাতির শিকার ভজন চাকী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য, সাধন চাকী অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক এবং রবিন চাকী ব্যবসায়ী।
তাদের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় এলাকায় হিন্দুদের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, ডাকাতির ঘটনায় ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে বুধবার বিকেল পর্যন্ত থানায় অভিযোগ দেয়া হয়নি।
থানায় মামলা না হলেও ডাকাতির সাথে জড়িতদের সনাক্ত করতে পুলিশের একাধিক টীম মাঠে নেমেছে। এছাড়াও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ