বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

শ্রীপুরে সরকারি বিদ্যুৎ লাইন নিয়ে সক্রিয় দালাল চক্র

শ্রীপুর (গাজীপুর) সংবাদদাতা: গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের যোগীরছিট এলাকায় সরকারি মাস্টারপ্ল্যানের অন্তর্ভুক্ত বিদ্যুৎ লাইন নিয়ে সক্রিয় দালাল চক্র। এই চক্রটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রাপ্য বিদ্যুৎ লাইন থেকে বিপুল পরিমান টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। অভিযোগ দায়েরের পরেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ।
এ বিষয়ে যোগীরছিট এলাকার মৃত রুস্তম আলীর পুত্র মোহাম্মদ আলী পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ও ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগে জানা যায়, বর্তমান সরকার তৃণমূলে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌছে দিতে স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব এড. রহমত আলীর ডিও লেটারের প্রেক্ষিতে মেজর মতিউর রহমানের বাড়ি থেকে মোহাম্মদ আলীর বাড়ি পর্যন্ত ১.৭ কিলোমিটার বিদ্যুত লাইন নির্মানের চুড়–ান্ত অনুমোদন দেয়। পরবর্তীতে ওই লাইন নির্মাণের জন্য ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ ঠিকাদার নিয়োগ করে। এ সময় একটি চক্র ওই লাইনের নির্মাণবাবদ সংযোগ প্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা তুলতে তৎপর হয়ে উঠে।
তারা গ্রাহক প্রতি ৭ থেকে ১০ হাজার টাকা উত্তোলন করে।
অভিযোগে আরও জানা যায়, ফজলুল হক, আফাজ উদ্দিন, হক মিয়াসহ আরও কয়েকজন ও ভালুকার ঠিকাদার আরশ এন্টারপ্রাইজের মালিক ফয়েজ হোসেন খান মিশুর সমন্বয়ে টাকা উত্তোলন করেন। ফয়েজ হোসেন খান মিশু ভালুকা উজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সদস্য আবুল হোসেন খান মিলনের ছেলে।
 যোগীরছিট গ্রামের বিদ্যুৎ সংযোগ প্রার্থী সাবিনা জানান, তিনি অভিযুক্ত ফজলুল হকের কাছে ২ হাজার টাকা প্রদান করে। পরবর্তীতে আরও ৫ হাজার টাকা দিতে ৭ দিনের সময় বেঁধে দেন, না দিলে বিদ্যুৎ লাইন দেওয়া হবে না বলে হুমকি দেয়।
স্থানীয় রহিম উদ্দিন জানান, তিনিও আপাতত ৪ হাজার টাকা প্রদান করেন। গৃহবধূ রহিমা জানান, তিনি বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য তার ছাগল বিক্রি করে দালালদের হাতে ৫ হাজার টাকা দিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ