বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

তরুণীকে ভারতের পতিতালয়ে বিক্রির অভিযোগে গ্রেফতার-১

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ভাল কাজের প্রলোভন দেখিয়ে ময়না বেগম (২২) নামে এক তরুণীকে ভারতের একটি পতিতালয়ে বিক্রি করার অভিযোগে রেজাউল (৪০) নামে এক পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সম্প্রতি ফতুল্লার তল্লা চেয়ারম্যান রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে নারী পাচারকারী রেজাউলকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত রেজাউল খুলনার পাইকগাছার চরলতিয়ার শাহজাহান আলীর ছেলে। সে পরিবার নিয়ে ফতুল্লার তল্লা এলাকায় বসবাস করে।
এর আগে রোববার রাতে শহরের ২নং বাবুলাই এলাকার ময়নার ধর্মের ভাই রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে রেজাউল ও তার স্ত্রী সাদিয়া বেগমসহ ৭জনকে আসামী করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করে।
মামলার তদন্তকারী অফিসার ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান জানান, কুমিল্লার মতলব থানার তাফালিং বাজার এলাকার আনোয়ার হোসেনের মেয়ে ময়না বেগম। তার সাথে রেজাউলের স্ত্রীর পূর্ব সম্পর্কের জের ধরে তাদের বাড়িতে আসা যাওয়া করতো। ময়নার পারিবারিক অশান্তির কারণে তাকে রেজাউলসহ অন্য আসামীরা অর্থের উপার্জন দেখানো প্রলোভন দেখিয়ে গত বছরের ২৫ জুন রেজাউলসহ কয়েকজন মিলে যশোর জেলার নড়াইলের রাজিব নামে এক পাচারকারী চক্রের সদস্যের কাছে হস্তান্তর করে। পরে রাজিব যশোর বর্ডার দিয়ে ভারতের একটি পতিতালয়ে বিক্রি করে দেয়। গত ২৫ আগস্ট ময়না ভারতের পতিতালয় হতে বাংলাদেশে তার সম্পর্কের ভাই বাবু সারোয়ার ও রফিকুল ইসলামের কাছে ফোন করে পাচারের বিষয়টি জানায়। পরে রফিকুল ইসলাম ও বাবু সারোয়ার পাচারকারীদের চাপ সৃষ্টি করলে ময়না বেগমকে ভারতে পতিতালয়ে বিক্রির কথা জানায়। আর বিষয়টি নিয়ে মামলা করলে ময়নাকে ভারত হতে এনে দিবে না এমন হুমকিও দেয়া হয়। পরে ময়না বেগমকে ভারতে পাচার করে দেয়ার অভিযোগে নারী শিশু আদালতে একটি মামলা দায়ের করলে আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশকে মামলা রুজু করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার আদেশ দেন। পরে সেই মামলার ২নং আসামী রেজাউলকে   গ্রেফতার করা হয়। আর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। আর ভারতে পাচার করে দেয়া ময়নার পরিবারের সাথে আলোচনা করে উদ্ধারের চেষ্টা করা হবে। তিনি আরো বলেন, যশোর নড়াইলের উজ্জ্বল চেয়ারম্যানের ভাগিনা রাজিবকে গ্রেফতার করতে পারলে ময়না বেগমের পাচারের আরো তথ্য বেরিয়ে আসবে। রেজাউলকে দিয়ে অন্য আসামীদের সনাক্তসহ গ্রেফতার অভিযান চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ