শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ইউরোপের নতুন সন্ত্রাস দমন আইন মুসলমানদের জন্য বৈষম্যমূলক -অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

১৮ জানুয়ারি, ইউরো নিউজ : ইউরোপের  তৈরি নতুন সন্ত্রাস দমন আইনকে মুসলিম ও শরণার্থীদের জন্য বৈষম্যমূলক বলে উল্লেখ করেছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার পর্যবেক্ষক সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।
মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে সংস্থাটি বলেছে, নতুন এই আইন ‘বিপজ্জনকভাবে অসম’ এবং এটি শঙ্কা ও বিচ্ছিন্নতা ছড়িয়ে দিচ্ছে। ফ্রান্সভিত্তিক বহুভাষিক ইউরোপীয় গণমাধ্যম ইউরো নিউজ এ খবর দিয়েছে।
খবরে বলা হয়েছে, গত দুই বছরে ইউরোপের ১৪টি দেশে যে নিরাপত্তা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, তাতে সতর্কবার্তা জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। এ সময়ের মধ্যে ফ্রান্স, বেলজিয়াম ও জার্মানিতে জঙ্গি হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ২৮০ জন।
অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালে জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলে গৃহীত রেজ্যুলেশন অনুযায়ী ইউরোপের দেশগুলোতে সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে কেবল বিদেশির ধরপাকড় করার বিষয়টি মতপ্রকাশের স্বাধীনতার সুযোগকে সংকুচিত করেছে। সেটা বিশেষ করে মুসলিম ও শরণার্থীদের মধ্যে শঙ্কা তৈরি করেছে।
অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের কাউন্টার-টেরোরিজম বিশেষজ্ঞ ও প্রতিবেদনের লেখক জুলিয়া হল বলেন, ‘সরকার কোনো একজন ব্যক্তিকে বলছে, ‘আপনাকে সত্যিই সন্দেহভাজন মনে হচ্ছে। আপনি কমিউনিটি সেন্টারে যাতায়াত করেন। আপনি নির্দিষ্ট একটি মসজিদে যাতায়াত করেন। আর এ কারণে আমরা আপনার আচরণে বিধিনিষেধ আরোপ করছি। কারণ, আমরা মনে করছি যে ভবিষ্যতে আপনি কোনো অপরাধ করতে পারেন।’ প্রতিবেদনে এই বিষয়টিকে সবচেয়ে সমস্যার বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
জুলিয়া হল সতর্ক করে বলেন, ‘এ ধরনের ‘অত্যন্ত কঠোর’ নজরদারি এবং তল্লাশি, আটক ও গ্রেপ্তারের ক্ষমতার অপপ্রয়োগ হতে পারে আন্দোলনকারী ও সংখ্যালঘু দলগুলোর ওপর, যারা প্রকৃতপক্ষে রাষ্ট্রের জন্য হুমকির কারণ নয়।’
এ প্রসঙ্গে মুসলিম ও শরণার্থীদের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘এই আইনে যেসব পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে তার প্রতিটি ক্ষেত্রেই বৈষম্যমূলক উপাদান রয়েছে। এই আইনের কারণে মুসলিম, মুসলিমভাবাপন্ন, বিদেশি, অভিবাসী ও শরণার্থীরা বৈষম্যের শিকার হবেন।’
এ ধরনের গণ-নজরদারির বদলে যেসব ব্যক্তি সন্দেহভাজন কেবল তাদের ওপরই নজরদারি সীমাবদ্ধ রাখার আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ