বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২১
Online Edition

শ্রীপুরে হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে জমি জবর দখলের অভিযোগ

শ্রীপুর (গাজীপুর) সংবাদদাতা : গাজীপুরের শ্রীপুরে হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে জমি জবর দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগে জানা যায়, ভাওয়াল পরগনার জমিদার শ্যামকৃষ্ণ রায় চৌধুরীর নিকট থেকে ১৯ কার্তিক ১৩৪৯ সনে আব্দুল করিম পত্তনের মাধ্যমে জমির মালিক হয়। তার মৃত্যুর পর তার পুত্র আব্দুল কাইয়ুম উত্তরাধিকার সূত্রে ও এসএ আরএস রেকর্ড মূলে মালিক হয়ে ১৯৭৪ সালে ১০৬৪৪নং দলিল মূলে আইয়ুব মিয়ার নিকট পৃথক ২টি দলিল মূলে ৭.১৫ শতাংশ জমি বিক্রি করে। ১৯৭৪ সালে আইয়ুব মিয়া ক্রয় সূত্রে ঐ জমির মালিক হয়ে ভোগদখলে থাকা অবস্থায় আইয়ুব মিয়ার মৃত্যুর পর তার দুই পুত্র জুনাইক বাবু ও মো. মামুন মিয়া পৈত্রিক ওয়ারিশ সূত্রে মালিক হয়ে ভোগদখলে থাকা অবস্থায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। প্রথম পর্যায়ে পার্কের এরিয়া প্ল্যান অনুযায়ী সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে পার্কের কার্যক্রম শুরু হয়।
পরে পার্কের সাবেক পিডি তপন কুমার দে ও শীব প্রসাদসহ স্থানীয় কতিপয় ভূমিদস্যুদের প্ররোচনায় মামুন গংদের জমি সাফারি পার্কের এরিয়ার জমি দাবি করে জোরপূর্বক সীমানা প্রাচীর নির্মাণ শুরু করে। এতে স্থানীয় ভাবে বাধা দিয়ে প্রতিকার না পেয়ে জবর দখল ঠেকাতে হাইকোর্টের স্মরণাপন্ন হলে হাইকোর্ট ১ম পর্যায়ে ৬ মাস ও পরবর্তীতে আরও ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করে। কিন্তু সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষ ঐ আদেশের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রকাশ্যে জোরপূর্বক সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বললে তারা জানায়, পার্কের নির্দিষ্ট জমিতেই সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে। জমির মালিকানার রেকর্ডপত্রের ব্যাপারে জানতে চাইলে কৌশলে এড়িয়ে যান। এ ব্যাপারে জমির মালিক মামুন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ