সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ট্রাম্পের আমলে নাগরিক অধিকার সুরক্ষার দাবিতে ওয়াশিংটনে বিক্ষোভ 

সংগ্রাম ডেস্ক : ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন ভোটাধিকার ও ন্যায়বিচারের মতো নাগরিক অধিকারগুলো রক্ষা করতে লড়াই করার প্রতিজ্ঞা করেছেন মার্কিন অধিকারকর্মীরা। আর এই দাবি জানিয়ে তারা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছেন।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণের সময়ে সপ্তাহব্যাপী প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে স্থানীয় সময় শনিবার ওয়াশিংটনে ওই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। রয়টার্স ও স্কাই নিউজ।

রয়টার্স‘র প্রতিবেদনে বলা হয়, তীব্র বৃষ্টি উপেক্ষা করে ওয়াশিংটনের মার্টিন লুথার কিং মেমোরিয়ালে প্রায় দুই হাজার জনতা সমবেত হয়েছেন। সমাবেত মানুষগুলোর মধ্যে অধিকাংশই কালো বিক্ষোভকারীরা ছিলেন। তারা সংখ্যালঘু অধিকার সুরক্ষা এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্বাস্থ্য নীতি ‘ওবামা কেয়ার’ বাতিল হওয়া রোধে সবাইকে লড়াই করার আহ্বান জানিয়েছেন। সমাবেশে তারা ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট থাকাকালে যাতে নাগরিক অধিকারগুলো সুরক্ষিত হয় তার জন্য লড়াই চালিয়ে যাবেন বলেও প্রতিজ্ঞা করেন।

সমাবেশের অন্যতম উদ্যোক্তা ও মানবাধিকার কর্মী আল শার্পটন মার্কিন কংগ্রেসের ডেমোক্র্যাটদের ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ‘শক্ত অবস্থান’ নেয়ার আহ্বান জানান। শার্পটন বলেন, আমরা এতোদিনের সংগ্রামের মধ্য দিয়ে যা অর্জন করেছি, তা একটি নির্বাচন জয়ের চেয়ে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আর এটি দেশের মানুষকে বোঝাতেই তীব্র বৃষ্টি উপেক্ষা করে ওয়াশিংটনে সমবেত হয়েছে তারা। এটি তারা কোনোভাবেই হারাতে চায় না বলেও সমাবেশে জানান তিনি।

প্রায় ৩০টি ট্রাম্প বিরোধী সংগঠন ওই সমাবেশের আয়োজন করে। তাদের শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সমাবেশে অংশগ্রহণকারী বহু বিক্ষোভকারী ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণের অনুষ্ঠানে বাধা দেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন। তবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখার জন্য ওয়াশিংটন পুলিশ ও সিক্রেট সার্ভিস অতিরিক্ত প্রায় তিন হাজার কর্মকর্তা এবং পাঁচ হাজার ন্যাশনাল গার্ড সদস্য প্রস্তুত রেখেছে।

প্রসঙ্গত, ওয়াশিংটনে ২০ জানুয়ারি ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণের পরদিন সপ্তাহব্যাপী প্রতিবাদ কর্মসূচির ঘোষণা করা হয়েছে। সমাবেশের নাম দেয়া হয়েছে ‘উইম্যানস মার্চ’। ওই সমাবেশে প্রায় দুই লাখ মানুষ সমাবেত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ