সোমবার ০৮ আগস্ট ২০২২
Online Edition

১ম ২য় ও ৩য় বিভাগ ফুটবল লিগের স্পন্সর সাইফ পাওয়ারটেক

স্পোর্টস রিপোর্টার : ঢাকা মহানগর ফুটবল লিগ কমিটির কার্যক্রমে গতি এনে দিলো সাইফ পাওয়ার টেক লিমিটেড। পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে নিয়মিত হয় না প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগ ফুটবল লিগ। তৃণমূলে ফুটবলের জাগরণ ফেরাতে আবারো দায়িত্ব নিয়ে কাজ শুরু করলেন বাফুফে সদস্য, মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অবস্থিত ফুটবলের ঐতিহ্যবাহী অফিসটি নতুন রূপ পেয়েছে। শুধু অফিস নয় সুখবর এসেছে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগ মিলিয়ে ৪৮ ক্লাবের জন্যও। ফুটবলার তৈরীর কারখানা হিসেবে পরিচিত এ তিন লিগের হাল ধরেছে সাইফ পাওয়ারটেক। আগামী চার বছরের জন্য এ তিনটি লিগ আয়োজনের সব দায়িত তারা নিয়েছে। গতকাল সোমবার মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটি কার্যালয়ে এ নিয়ে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে দুই পক্ষ। লিগ কমিটির পক্ষে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেছেন মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ এবং সাইফ পাওয়ারটেকের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার তরফদার মো. রুহুল আমীন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ।
মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ দিনটিকে তিনটি লিগের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, ‘এখন থেকে প্রতিবছর ধারাবাহিকভাবে লিগ হবে। নানা কারণে এ তিনটি লিগে সেশনজট লেগে আছে। এ গুলো দূর করা হবে। এ তিনটি লিগের সব দায়িত্ব সাইফ পাওয়ারটেকের।’তরফদার মো. রুহুল আমীন বলেছেন, ‘আমরা অনেক দিন ধরে ফুটবলের সঙ্গে আছি। এবার আমরা এ তিনটি লিগের পৃষ্ঠপোষকতা করতে এসেছি। এ তিনটি লিগ পরিচালনা করতে যে ব্যয় হবে তা আমরা বহন করবো। কোন লিগের জন্য কী পরিমাণ অর্থ লাগতে পারে তা এখনো ঠিক হয়নি। তবে যাই লাগুক আমরা দেবো।’ স্পন্সর প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার অবশ্য কিছু শর্ত জুড়ে দিয়েছেন, ‘খেলা হতে হবে মাঠেই। মাঠের বাইরে অন্য কোনো খেলা চলবে না। যদি লিগগুলোতে শৃঙ্খলা না থাকে তাহলে আমরা আর সামনে এগুবো না।’ প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগের ক্লাবগুলো শুধু একটি লিগই খেলে। তবে আগামীতে এ ক্লাবগুলো নিয়ে টুর্নামেন্ট করার পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছেন মহানগরী ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ