মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

পরাজয় দিয়েই নতুন বছর শুরু করল মাশরাফিরা

স্পোর্টস রিপোর্টার : নতুন বছরের শুরুটা ভালো হলোনা টাইগারদের। পরাজয় দিয়েই বছর শুরু করতে হয়েছে মাশরাফিদের। ওয়ানডে সিরিজে হোয়োইটওয়াশ দিয়ে বছর শেষ করার পর টি-টোয়েন্টি সিরিজে হার দিয়েই নতুন বছর শুরু করেছে বাংলাদেশ। গতকাল সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। জয়ের জন্য ১৪২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৮ ওভারে ৬ উইকেট হাতে  রেখে জয় নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। ফলে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো স্বাগতিকরা। জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২.৩ ওভারেই ২২ রান করে শুরুটা দারুণ করে নিউজিল্যান্ড। তবে এই ওভারেই ধাক্কা খায় নিউজিল্যান্ড। রুবেলের বলে ৬ রান করে সাকিব আল হাসানকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ওপেনার ব্রুম। এরপর চতুর্থ ওভারে মোস্তাফিজ এসেই সফল আঘাত হানেন। কট বিহাইন্ড করেন ওয়ানডাউনে ব্যাট করতে নামা মুনরোকে। রানের খাতা খেলার আগেই বিদায় নেন তিনি। রুবেল আর মোস্তাফিজের পর এবার আঘাত হানেনন সাকিব। ১৩ রানে ব্যাট করতে থাকা অ্যান্ডারসনকে ফেরান তিনি।  ফলে ৪৬ রানে তিন উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। এরপর জুটি গড়ার চেষ্টায় ছিলেন ব্রুস ও উইলিয়ামসন।  যদিও ১১তম ওভারে দ্রুত রান নিতে গিয়ে ৭ রানে রান আউট হয়ে বিদায় নেন ব্রুস। তবে এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি নিউজিল্যান্ডকে। কিউইদের একাই টেনে তুলেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।  তার অপরাজিত ৭৩ রানে জয় পায় স্বাগতিকরা।  ৪১ রানে তার সাথে অপরাজিত ছিলেন গ্র্যান্ডহোম।  আর ৬ উইকেটে জয় দলের ম্যাচ সেরা হন কেন উইলিয়ামসন। এর আগে, টস জিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১৪১ রান করে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ করেন সর্বোচ্চ ৫০ রান।  ব্যাট করতে নেমে প্রথমেই উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়েই ছিল মাশরাফিরা। সেখান থেকে হাফ সেঞ্চুরি করে দলকে ভালো স্কোরে পেওছে দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারেই ফিরে যান ওপেনার ইমরুল কায়েস। হেনরির বলে লাইনের বাইরে খেলতে গিয়ে রানের খাতা খুলার আগেই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন ইমরুল। ইমরুল বিদায়ে টিকতে পারেননি তামিম ইকবালও।  হুইলারের বলে হুক করতে গিয়ে তালুবন্দী হন তামিম ইকবাল। বিদায়ের আগে তামিম করেন ১১ রান। তামিমের বিদায়ে ভূমিকা ছিল অভিষেক হওয়া ব্রুস ও হুইলারের। ব্রুসের হাতেই ক্যাচ দেন তামিম। পিছিয়ে থাকেননি অভিষেক হওয়া আরেক পেসার ফার্গুসন।  পর পর জোড়া আঘাতে সাব্বির ও সৌম্য সরকারকে। সাব্বির ১৬ রান করলেও সৌম্য ছিলেন রান শূণ্য। টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম ম্যাচের প্রথম দুই বলেই উইকেট পেয়েছেন এই পেসার। ৩০ রানে প্রথম ৪ উইকেট হারানো বাংরাদেশকে এগিয়ে নিতে জুটি করেন মাহমুদউল্লাহ ও সাকিব। ৫ম উইকেটে ৩৭ রান আসে এই জুটিতে। তবে ১১তম ওভারে ১৪ রানে ব্যাট করতে থাকা সাকিবকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন গ্র্যান্ডহোম। তারপরেও থেমে থাকেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ষষ্ঠ উইকেটে মোসাদ্দেককে নিয়ে যোগ করেন আরও ৩২ রান। দলীয় ৯৯ রানে মোসাদ্দেককে ফিরিয়ে ফের জুটি ভাঙেন স্যান্টনার।  মোসাদ্দেক করেন ২০ রান। ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক মাশরাফি ফেরেন ১ রান করে। শেষ ওভারে ৫২ রানে ফার্গুসনের বলে  বাল্ড হন রিয়াদ। নুরুল হাসান ৬ রানে ও রুবেল ১ র নে অপরাজিত ছিলেন। এই ম্যাচে কিউইদের দলে অভিষেক হয়েছে তিন জনের। তারাই মূলত আলো ছড়িয়েছেন। ফার্গুসন তিনটি ও হুইলার দুটি করে উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
বাংলাদেশ----- ১৪১/৮ (২০ ওভার)
নিউজিল্যান্ড----১৪৩/৪ (১৮ ওভার)
নিউজল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ