বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ভারপ্রাপ্তদের ভারে স্থবির ৫টি অফিসের কার্যক্রম

ধামইরহাট (নওগাঁ) সংবাদদাতা: ধামইরহার উপজেলার ৫টি অফিসে দীর্ঘদিন ধরে কর্মকর্তা না থাকায় কাজের গতির মন্থর হয়েছে। উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসে প্রায় দেড়যুগ ধরে কর্মকর্তা নেই। জুনিয়র পরিসংখ্যান সহকারী আয়েশ উদ্দীন জানান, ১১ বছর আগে আমি যোগদান কালে অফিসার ছিল না, তার আগের কথা জানি না। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাও প্রায় ১০ বছর যাবৎ ভারপ্রাপ্ত দিয়ে চলছে বলে অফিস স্টাফ সূত্রে জানা গেছে। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক পদটিও কয়েক বছর যাবৎ ফাঁকা। পতœীতলা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক  এসএম আরমান আলী নিষ্ঠার সাথে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। উপজেলা অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সের পদটি দীর্ঘদিন যাবৎ ভারপ্রাপ্ত  দিয়ে চলছে। ফলে চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেকটা বেহাল অবস্থায় পড়েছ। ভারপ্রাপ্ত স্বাস্ব্য প্রশাসক ডাঃ মাজেদুরের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে দুর্নীতির দায়ে মানববন্ধন হয়েছে এবং বিভাগীয় তদন্ত পূর্বক তার শাস্তির দাবিতে নওগাঁ সিভিল কার্যালয়সহ বিভিন্ন ঊর্ধ্বতন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করে মানববন্ধন কারীরা অভিযোগ করেন বলে তারা জানান। ডাঃ মাজেদুরের ব্যবহারে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে অসন্তোষ ও চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। তবে ডাঃ মাজেদুর তা অস্বীকার করেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের পদ প্রায় ১ মাস যাবৎ শূন্য রয়েছে। এসকল দপ্তর চলছে ভারপ্রাপ্ত অফিসার দ্বারা। এছাড়া প্রায় সব কয়টি দপ্তরে লোকবল ব্যাপক ঘাটতি আছে। হাসপাতালে ডাক্তার সংকট কিছুতেই পূরণ হচ্ছেনা। ডাক্তারদের ক্লিনিকে সার্ভিস, প্রাইভেট চেম্বারে রোগী দেখা ও উচ্চ শিক্ষার সুযোগ না থাকায় বদলি নিয়ে চলে যান এমন আলোচনা করেন গত নবেম্বর মাসের হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির মাসিক সভায় সহসভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান মঈন উদ্দীনসহ সদস্যবৃন্দ। এ বিষয়ে ইউএনও সফিউজ্জামান ভূঁইয়া জানান, কিছু দপ্তরে অফিসার ঘাটতি আছে। আমি বিভিন্ন মিটিংয়ে এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করছি। অল্প সময়ের মধ্যে কয়েকটি দপ্তরে কর্মকর্তা এবং কাজে গতিশীলতা ফিরে আসবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ