বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

সমস্যায় জর্জরিত দর্শনা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : দর্শনা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটি অবশেষে চালু হলেও পিকআপভ্যানসহ প্রয়োজনীয় উদ্ধার সরঞ্জামাদি ও লোকবলের অভাবে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে। এলাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ সাধারণ মানুষের কাক্সিক্ষত সেবা দিতে স্টেশনটিকে তৃতীয় শ্রেণি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত করার দাবি উঠেছে।
উল্লেখ্য, ২০১০ সালে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দামুড়হুদা-দর্শনা সড়কের লোকনাথপুর তালতলা নামক স্থানে রাস্তার পাশে এক বিঘা জমির উপর সোয়া এক কোটি টাকা ব্যয়ে দর্শনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। নানা চড়াই-উৎরাই পার করে বছর তিনেক আগে স্টেশনটির ভৌত অবকাঠামোর নির্মাণ কাজ শেষ হয়। এরপর প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি ও লোকবলের অভাবে স্টেশনটি চালু হতে পার হয়ে যায় আরও এক বছর। অবশেষে ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে স্টেশনটির কার্যক্রম শুরু হয়। এর পর থেকেই প্রতিষ্ঠানটি সুনামের সাথে এলাকার মানুষের সেবা দিয়ে আসছে। বর্তমানে স্টেশনটির লোকবলের মোট ১৬ টি পদের বিপরীতে রয়েছে ১৩ জন। এর মধ্যে স্টেশন অফিসারের সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ পদটি রয়েছে শূন্য। স্টেশন অফিসার না থাকায় প্রশাসনিক নানা কাজে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। বর্তমানে এখানে একটি মাত্র পানিবাহী গাড়ি থাকালেও নেই পিক-আপ ভ্যান বা দ্বিতীয় কলসহ জরুরি উদ্ধারের প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি। পিক-আপ ভ্যানের অভাবে সড়ক দুর্ঘটনায় আহতের  দ্রুত উদ্ধার তৎপরতা ব্যহত হচ্ছে। স্টেশনটিতে পল্লী বিদ্যুতের লাইন ছাড়া কোন বিকল্প বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নেই। ফলে বিকল্প বিদ্যুৎ ব্যবস্থা না থাকায় অন্ধকার রাতে লোড শেডিংয়ের সময় পুরো স্টেশনটি অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে সেইসাথে পাম্পে পানিতোলাসহ পড়তে হয় নানা ভোগান্তিতে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ