রবিবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২০
Online Edition

নৌবাহিনীর ৭৮৩ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ 

খুলনা অফিস : বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২০১৬-বি ব্যাচের ৭৮৩ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ গতকাল শুক্রবার সকালে খুলনাস্থ নৌঘাঁটি বানৌজা তিতুমীর প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, ওএসপি, এনডিসি, পিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

নৌবাহিনীর ২০১৬-বি ব্যাচের নাবীন নাবিকদের মধ্যে মোঃ তুষারুজ্জামান,ওডি/ ইফটি পেশাগত ও সকল বিষয়ে সেরা চৌকস নাবিক হিসেবে ‘নৌ প্রধান পদক’ লাভ করেন। এছাড়া ইনজামূল হক পলাশ, ডিই/এমএ-২/ইফটি দ্বিতীয় স্থান অথিকার করে ‘কমখুল পদক’ এবং আবদুল্লাহ আল মামুন, আরও (জি)-২ইফটি তৃতীয় স্থান অধিকার করে ‘তিতুমীর পদক’ লাভ করেন।

প্রধান অতিথি নবীন নাবিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শিতা এবং পরবর্তীতে তার সুযোগ্য উত্তরসুরী বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশের ক্রমাগত অর্থনৈতক উন্নয়নসহ সামরিক বাহিনী এবং সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে উন্নয়নের এক রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করছে। পাশাপাশি নৌবাহিনীর সক্ষমতাও বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং একটি আধুনিক, ত্রিমাত্রিক ও যুগোপযোগী বাহিনী গঠনের কার্যক্রম চালমান রয়েছে। এরই অংশ হিসেবে শীঘ্রই নৌবহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে ‘নবযাত্রা’ ও ‘জয়যাত্রা’ নামে দুইটি সাবমেরিন। ইতোমধ্যে সাবমেরিন দুইটি নিরাপদে দেশে এসে পৌঁছেছে। অচিরেই সাবমেরিন দুইটি কমিশনের মাধ্যমে নৌবাহিনী ত্রিমাত্রিক শক্তি হিসেবে উন্মোচিত হবে।  তিনি নবীন নাবিকদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় মহান দায়িত্বে নিজেদের আত্মনিয়োগ করার পরামর্শ দেন। একইসাথে তিনি প্রশিক্ষণলদ্ধ জ্ঞান যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে নিজেদেরকে যোগ্য নাবিক হিসেবে গড়ে তোলা এবং সেই সাথে শিক্ষাকে ভবিষ্যৎ কর্মজীবনকে ব্যবহার করে জাতীয় নিরাপত্তা ও অগ্রগতির পথে সঠিকভাবে কাজ করার নির্দেশ প্রদান করেন। মনোজ্ঞ এ কুচকাওয়াজে আন্যান্যর মধ্যে সহকারী নৌবাহিনী প্রধান (ম্যাটেরিয়াল), খুলনা নৌ অঞ্চলের আঞ্চলিক কমান্ডার, খুলনা ও যশোর এলাকার পদস্থ সমরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং নবীন নাবিকদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ