শনিবার ১১ জুলাই ২০২০
Online Edition

পরিকল্পনার অভাবকে দায়ী করছেন অধিনায়ক মাশরাফি

স্পোর্টস রিপোর্টার : নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হার দিয়েই সফর শুরু হয়েছে বাংলাদেশের। প্রথম ওয়ানডেতে ৭৭ রানে হেরেছে টাইগাররা। এই হারকে পরিকল্পনার অভাব বলে মনে করেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ম্যাচে নিজেদের পরিকল্পনার প্রয়োগ ঠিকভাবে হয়নি বলে জানিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘প্রথম খেলায় আমাদের অনেকে কিছুটা একসাইটেড ছিল। শর্ট বল একটু বেশি করা হয়ে গেছে। শর্টবল ওরাও করেছে। আমাদের শর্টবলগুলোর অনেকগুলো পরিকল্পনামাফিক হয়নি। এই কন্ডিশনে শর্ট বল অবশ্যই করতে হবে। তবে সেটা কার্যকরভাবে করতে হবে। নিউজিল্যান্ডের বোলাররা যেমন করেছে। ওদের শর্ট বলগুলো এসেছে আমাদের মাথা বরাবর। আমাদের শর্ট বল ছিল ওদের বুক উচ্চতায়, যেটা ওরা অনায়াসেই  খেলতে পেরেছে। এ মাঠে ২৮০-৩০০ রান বা বেশি হতে পারে এটি আমাদের ধারণাতেই ছিল। গত বিশ্বকাপেও আমরা তাই করেছি। কিন্তু আজ ওদের রান কিছুটা বেশিই হয়ে গেছে।’ নিজেদের ইনিংসে দ্রুত উইকেট পড়ে যাওয়াকেও হারের অন্যতম কারণ হিসেবে মরে করেন মাশরাফি। মাশরাফি বলেন, ‘আমাদের কিছু দ্রুত উইকেট এভাবে পড়ে না গেলে খেলাটা একটু প্রতিদ্বন্ধিতাপূর্ণ হতো। এরপরও আশার কথা মিডল অর্ডার, লোয়ার অর্ডার আমাদের ভালো করেছে। তবে ব্যাটিংটা আরও ভালো হওয়া উচিত ছিল। আমাদের ব্যাটসম্যানদের জুটিগুলো আরেকটু লম্বা করা গেলে ভালো হতো।’ সাকিব-মুশফিকের জুটির কথা বিশেষ করে উল্লেখ করেন মাশরাফি। আর তরুণ মোসাদ্দেকের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘ও বেশকিছু দিন ধরে ধারাবাহিক ভালো করছে। খুব ভালো খেলেছে আজকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাকে সঙ্গ দিয়ে যাওয়ার কেউ ছিল না।’ পরের ম্যাচ হবে নেলসনে। আর এই ম্যাচ নিয়ে খুবই আশাবাদী মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘ওই মাঠ-উইকেট আমাদের পরিচিত। গত বিশ্বকাপের সময় আমরা সেখানে খেলেছি। আশা করি, সেখানে আমরা এখানকার চেয়ে ভালো কিছু করতে পারবো।’ দলের ফিল্ডিং নিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আমাদের ফিল্ডিং অনেকটাই ছিল জরাগ্রস্ত। অনেক ওভারে দুই-তিন নিয়েছে ওরা, যেগুলো চেক দিতে পারতাম। ২০ রানের মত ওখানেই বেশি হয়েছে। বোলিংয়ে শর্ট বল বেশি করেছি। বোলিং-ফিল্ডিং ভালো হলে আমরা ৪০ রান কম দিতে পারতাম।
সেক্ষেত্রে শুরুতে দ্রুত উইকট হারানোর পরও আমাদের সুযোগ থাকত। বাড়তি ওই রানটাই আমাদের ভুগিয়েছে। যদি ছোট ছোট জায়গা আমরা ঠিক করতাম, তাহলে আরেকটু ভালো হত। যেটা বললাম, বড় হতাশার জায়গা ছিল ফিল্ডিংয়ে আমরা হতোদ্যম ছিলাম। ফিল্ডিংয়ে একটু ভালো করলে বোলাররাও হয়ত একটু অনুপ্রাণিত হতো। বোলিং-ফিল্ডিং বাজে হওয়াতেই ৪০-৫০ রান বেশি হয়েছে। এই রান তাড়া করতে হলে শুরুতে দ্রুত রান করতে হবে। উল্টো শুরুতে উইকেট পড়েছে।’ ব্যাটিং নিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘ভালো লেগেছে যে এত কিছু হওয়ার পরও আমরা ইতিবাচক থাকতে পেরেছি ব্যাটিংয়ে। শুরুতে দ্রুত উইকেট হারালেও পরে মোটামুটি একটা রান করেছি। সামনে যদি আমরা ওদের ২৮০-৩০০ রানে আটকে রাখতে পারি, এই ম্যাচ তাহলে বিশ্বাস জোগাবে যে আমরা সেই রান তাড়া করতে পারি।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ