বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

বিচারের দাবিতে দিল্লীতে ফিরে এসেছেন মার্কিন ধর্ষিতা পর্যটক

২৫ ডিসেম্বর, এনডিটিভি : নয়াদিল্লীর একটি হোটেলে ৯ মাস আগে যুক্তরাষ্ট্রের এক পর্যটক গণধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন ধর্ষিতা নিজে। গতকাল রোববার এডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ২৫ বছর বয়সী মার্কিন ওই ধর্ষিতা তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া সেই দুর্ঘটনার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।
তিনি যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভিনিয়া অঙ্গরাজ্যের একজন শিক্ষক। গ্রীষ্মকালীন ছুটি কাটাতে ভারত সফরে এসেছিলেন। তিনি একটি ট্যুর প্যাকেজে ভারত সফরে এসেছিলেন। দিল্লীর একটি হোটেলে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।
তার সঙ্গে দেওয়া ট্যুর গাইডার খাবার পানিতে মাদক মিশিয়ে তাকে ২দিন অজ্ঞান করে রাখে। ট্যুর কোম্পানি ও হোটেলের কর্মচারীরা অজ্ঞান অবস্থায় তাকে গণধর্ষণ করে।
এরপর মার্কিন ওই নারী পেনসিলভিনিয়ায় ফিরে যাওয়ার পর প্রায় ৩ মাস পর মনে করতে সক্ষম হন তার সঙ্গে কারো শারীরিক কিছু ঘটেছিল। তার পরিবার ও বন্ধুদের সহায়তায় ওই অন্যায়ের প্রতিবাদে দিল্লীর হোটেল ও ট্যুর কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।
সাক্ষাৎকারে মার্কিন ওই নারী আরো জানায়, আমেরিকান ওভারসীস ডমেস্টিক ক্রাইসিস ভায়োলেন্স সেন্টার যুক্তরাষ্ট্রের একটি এনজিও এর সহযোগিতায় তিনি মামলা দায়ের করেন। তবে সে অবাক হয়েছে যখন অভিযুক্ত ট্যুর কোম্পানি ও ওই হোটেল মালিক জানতে পারে তাদের এখানে এমন একটি জঘন্য ঘটনা ঘটে গেছে। এতে তারা চিন্তিত হয় এটা ভেবে যে তাদের প্রতিষ্ঠানের সম্মান নষ্ট হচ্ছে। কিন্তু তারা আমার সঙ্গে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনার জন্য মোটেও অনুতপ্ত হলো না বলে জানায় ওই ধর্ষিতা।
এছাড়া ভারতের বিচার বিভাগের উপরও সে আস্থা রাখতে পারছে না। কেন না মামলা দায়ের করার পর প্রায় দুই মাস অতিবাহিত হয় তবে এখনো মামলার কোন সুরাহা হয়নি ভারতের আইন বিভাগে। এ বছর শুধু দিল্লীতে ১ হাজার ৯ শ  ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভারতে ধর্ষণের মতো সহিংসতা দিন দিন বাড়ছে বলে মনে করেন তিনি।
তিনি আরো বলেন প্রথমবার ভারতে আসায় খুব উৎফুল্ল ছিলেন তবে তার সঙ্গে এমন একটি ঘটনা ঘটায় সেই আনন্দ এখন তার জীবনের দুর্বিষহ এক কষ্টে পরিণত হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ