বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড প্রথম ওয়ানডে আজ

রফিকুল ইসলাম মিঞা : নিউজিল্যান্ড সফরে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এই ম্যাচ দিয়েই শুরু হবে বাংলাদেশ-নিউজল্যান্ড তিন ম্যাচে ওয়ানডে সিরিজ। প্রায় এক মাসের সফরে বর্তমানে নিউজিল্যান্ড আছে টাইগাররা। আর ওয়ানডে সিরিজ দিয়েই শুরু হবে মাশরাফিদের নিউজল্যান্ড মিশন। এরপর বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে টি-টোয়েন্টি আর টেস্ট ম্যাচ সিরিজও। বাংলাদেশ সময় আজ ভোর চারটায় শুরু হবে ম্যাচটি। ম্যাচ হবে ক্রাইস্টচার্চ হ্যাগলি ওভালে। ওয়ানডে সিরিজে জয় দিয়েই আজ নিউজিল্যান্ড সফর শুরু করতে চান টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মতুর্জা। 

নিউজিল্যান্ড সফরে এবার ভালো করার টার্গেট মাশরাফিদের। তাই বিপিএল শেষ করেই দেশ ছেড়েছিল টাইগার বাহিনী। প্রথমে সিডনি, ওয়াঙ্গারেই হয়ে ক্রাইস্টচার্চ-তিন পর্বের প্রস্তুতি শেষে মাশরাফিরা এখন মাঠের লড়াইয়ের অপেক্ষায়। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে আগের সব সফরেই কিন্তু ব্যর্থ হয়েই ফিরতে হয়েছিল বাংলাদেশ দলকে। কিন্তু এবার অন্য এক বাংলাদেশকে দেখা যেতে পারে নিউজিল্যান্ড সফরে। কারণ আগের তুলনায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে অনেক পরিবর্তন এসেছে। গত দুই বছরে ঘরের মাটিতে সাফল্য ছড়িয়েছে বাংলাদেশ দল। এবার বিদেশের মাটিতে নিজেদের প্রমান করতে চায় টাইগাররা। তাই নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিতে অস্ট্রেলিয়ার ক্যাম্প করেছিল বাংলাদেশ। সেখানে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পাশাপাশি নিউজিল্যান্ডে এসেও একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিল টাইগাররা। যদিও একটি ম্যাচে বৃষ্টি আইনে জয় পেলেও বাকি দুটিতে হারতে হয়েছে। ব্যাটসম্যানরা বড় কোনো ইনিংস খেলতে পারেননি। তারপরও প্রস্তুতি নিয়ে আশাবাদী ব্যাটিং পরামর্শক থিলান সামারাবীরা। আজ বাংলাদেশের হয়ে মাঠে নামার কথা আছে মোস্তাফিজের। মোস্তাফিজ দলের হয়ে মাঠে নামলে টাইগারদেও মনোবল আরো বেড়ে যাবে। যদিও তার মাঠে নামার বিষয়টি তার উপরই নির্ভর করছে। প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশ থেকে অনেক এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। পরিসংখ্যান আর শক্তিতে বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে দলটি। এর আগে দু-দলের ২৫ বারের দেখায় নিউজিল্যান্ড ১৭ বার আর বাংলাদেশ আটবার জয় পেয়েছে। তবে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে কখনই জয় পায়নি টাইগাররা। কারণ নিজ মাটিতে নিউজিল্যান্ড অনেক শক্তিশালী। অনেক বড় বড় দলও নিউজিল্যান্ডে মাটিতে সুবিধা করতে পারেনা। পারেনি বাংলাদেশও। নিউজিল্যান্ড সফর বাংলাদেশের জন্য কখনই সুখকর ছিল না। কারণ প্রতিটি সফরেই হার মেনে দেশে ফিরতে হয়েছে। ২০০১ সালে প্রথম সফরে দুটি টেস্টেই পরাজয়ের শিকার হয়েছিল বাংলাদেশ। ওই সফরে অবশ্য কোনো ওয়ানডে ম্যাচ ছিল না। এরপর ২০০৭-০৮ মওসুমে ২টি টেস্ট ও ৩টি ওয়ানডের সফরের প্রতিটিতেই হেরেছিল বাংলাদেশ। ২০১০ সালে ১ টেস্ট, ৩ ওয়ানডে ও ১ টি২০-তেও একই ঘঁনা ঘটেছিল। এমনকি গত বছর বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২৮৮ রান করেও ৩ উইকেটে হেরেছিল বাংলাদেশ। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই হারের বৃত্ত থেকে নিজেদের বের করে আনাটাই মাশরাফিদের মূল টার্গেট। আর এই টার্গেট নিয়েই আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জন্য একটা ভালো সযোগ হকে পারে এই সফরটা। কারণ সম্প্রতি নিউজিল্যান্ড দল কিন্তু খুব একট ফর্মে নেই। কারণ ওয়ানডেতে ভারতের বিপক্ষে ৩-২ ব্যবধানে হারের পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও ৩-০ ব্যবধানে হেরেছে দলটি। তার উপর এ সিরিজে শেষ ওয়ানডে ম্যাচটিতে থাকছেন না ওয়ানডে ফরমেটের সেরা বোলার ট্রেন্ট বোল্ট। এ ছাড়া পুরো টি-টোয়েন্টি সিরিজে থাকবেন না আরেক পেসার টিম সাউদি। এমনকি আরও বেশ কিছু ক্রিকেটারদের বিশ্রামে পাঠানো হতে পারে। এ ছাড়া গত বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলা মাত্র ৬ জন ক্রিকেটার রয়েছেন এই দলে। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেও দলে বেশ কিছু পরিবর্তন এনেছে কিউইরা। দীর্ঘদিন পরে দলে ডাক পড়েছে নিল ব্রুম ও লুক রঞ্চির। এদিকে চোখের অস্ত্রপচারের জন্য দলে নেই রস টেইলর। বাজে পারফরম্যান্সের জন্য বাদ পড়েছেন বিজে ওয়াটলিং। তবে ঘরের মাটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে বেশ ভালোই প্রস্তুত হচ্ছে দলটি। দলে ফিরছেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তবে এরই মধ্যে তিনি ছুটি কাটিয়ে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তিনি। অবশ্য তিনিও চাইবেন জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করতে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ