শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

আবার বন্ধ হচ্ছে সৌদির শ্রম বাজার!

সংগ্রাম রিপোর্ট : আবার বন্ধ হচ্ছে সৌদির  শ্রম বাজার। সম্প্রতি সৌদি সরকার প্রবাসী শ্রমিকদের ওপর নতুন করে করারোপ করায় সৌদিতে শ্রমিক পাঠানোর পথ বন্ধ হওয়ার আশংকা করছেন সংশ্লিষ্টরা। আগামী অর্থবছর থেকেই সৌদি সরকার প্রত্যেক প্রবাসী শ্রমিদের ওপর করারোপ করছে। ফলে পর্যায়ক্রমে  প্রত্যেক প্রবাসী শ্রমিককে প্রতি মাসে ১৬ হাজার টাকা করে সৌদি সরকারকে দিতে হবে। আরব নিউজ এ বিষয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়,  নতুন বছর থেকে প্রবাসী শ্রমিক ও নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের ওপর মাসিক ফি আরোপ করেছে সৌদি সরকার। সম্প্রতি দেশটি আগামী বছরের জন্য বাজেট ঘোষণা করে। বাজেটে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। আগামী ২০২০ সাল পর্যন্ত এ ফি দিতে হবে। বছরে বছরে এই ফি বাড়ানো হবে। ৪ বছরে একপর্যায়ে তা দাঁড়াবে ৮০০ সৌদি রিয়েলে। বাংলাদেশ মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১৬ হাজার টাকা। সৌদি সরকারের এই সিদ্ধান্তে বাংলাদেশের শ্রমিকদের জন্য সেদেশের বাজার আবারও বন্ধ হওয়ার আশংকা প্রকাশ করছে সংশ্লিষ্টরা।
সূত্র জানায়, সৌদি আরবে বর্তমানে কোনো কোম্পানিতে প্রবাসীর সংখ্যা স্থানীয়দের চেয়ে বেশি হলে ওই কোম্পানিকে লেভি (এক ধরনের কর) দিতে হয়। প্রবাসী প্রতি এই লেভির পরিমাণ ২০০ সৌদি রিয়েল। নতুন বাজেটে এই লেভির পরিমাণ ক্রমান্বয়ে বাড়ানো হয়েছে।
এতে আরও জানানো হয়, যেসব কোম্পানিতে স্থানীয়দের চেয়ে প্রবাসী কম- তাদের ক্ষেত্রে বর্তমানে ফি মওকুফের বিধান ছিল। কিন্তু নতুন বাজেটে আর সে সুযোগ থাকছে না। প্রবাসী কম হলেও তাদের ওপর (জনপ্রতি) লেভি আরোপ করা হবে। তবে সেক্ষেত্রে কোম্পানিগুলো কিছু ছাড় পাবে। বাজেটে আগামী ৫ বছরের জন্য একটি পরিকল্পনার কথা বলা হয়েছে। যেখানে তেল, গ্যাস, পানির দাম বাড়ানোসহ ভর্তুকি কমানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে  সৌদির অর্থমন্ত্রী মোহাম্মাদ আল জাদান জানিয়েছেন, প্রবাসীদের ওপর আরোপ করা এসব ফি’র আওতামুক্ত থাকবেন গৃহকাজে নিযুক্ত কর্মীরা যেমন ড্রাইভার এবং পরিচ্ছন্নকর্মী। তবে যারা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন তাদের ফি দিতে হবে। বর্তমানে কোনো সৌদি বা বিদেশিকে আয়কর দিতে হয় না। সরকার বলছে, নতুন বাজেটে এ সুবিধা অব্যাহত রাখা হয়েছে; তাদের ওপর কোনো আয়কর আরোপ করা হয়নি।
মন্ত্রী জানান, দুইভাবে এই ফি আরোপ করা হবে। একটা হচ্ছে- সৌদিতে বসবাসরত প্রবাসীদের পরিবারের সদস্যদের ওপর ভিত্তি করে। আরেকটা হচ্ছে- ইতঃপূর্বে আরোপিত লেভি; যা কোম্পানিগুলো পরিশোধ করে। ২০২০ সাল পর্যন্ত এই দুই ধরনের ফি বাড়ানো হবে।
বাজেট বক্তব্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালের জুলাইতে প্রবাসীদের ওপর নির্ভরশীল পরিবারের সদস্য প্রতি ১০০ রিয়েল করে ফি দিতে হবে। এটা বছরে বছরে বাড়ানো হবে। ২০১৮ সালের জুলাইতে এই ফি হবে ২০০ রিয়েল; ২০১৯ সালে হবে ৩০০ রিয়েল আর ২০২০ সালে হবে ৪০০ রিয়েল। অন্যদিকে, যেসব কোম্পানিতে প্রবাসীর সংখ্যা স্থানীয় নাগরিকদের সমান বা তার কম- তাদের জন্য ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানকে জনপ্রতি ৩০০ রিয়েল করে মাসিক ফি দিতে হবে। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে এটা হবে ৫০০ রিয়েল। আর ২০২০ সালের জানুয়ারিতে হবে ৭০০ রিয়েল।
স্থানীয়দের চেয়ে কোম্পানিতে প্রবাসী বেশি হলে ওই কোম্পানিকে জনপ্রতি ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে দিতে হবে ৪০০ রিয়েল; ২০১৯ সালে দিতে হবে ৬০০ রিয়েল এবং ২০২০ সালে হবে ৮০০ রিয়েল। প্রবাসীদের ওপর এই মাসিক ফি আরোপ দেশটির ঘাটতি কমিয়ে স্থানীয়দের জন্য কর্মসংস্থান বাড়াবে বলে মনে করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ