শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২
Online Edition

আশুলিয়ার ৫৫ পোশাক কারখানা বন্ধ করলো বিজিএমইএ

স্টাফ রিপোর্টার: বাড়িভাড়া বাড়ানোর প্রতিবাদে ও বেতন-ভাতা বাড়ানোর দাবিতে পোশাক শ্রমিকদের চলমান অসন্তোষের মুখে সাভারের আশুলিয়ার ৫৫টি তৈরি পোশাক কারখানা বন্ধ ঘোষণা করেছে বিজিএমইএ। এদিকে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে শ্রমিকরা।

গতকাল মঙ্গলবার পোশাক মালিকদের শীর্ষ এই সংগঠনটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান রাজধানীর কাওরান বাজারে বিজিএমইএ ভবনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। এসময় বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 তিনি জানান, শ্রম আইনের ১৩ (১) ধারা অনুযায়ী কারখানা বন্ধ করা হয়েছে। এর ফলে কারখানা বন্ধ থাকার সময় বেতন পাবেন না শ্রমিকেরা।

ন্যূনতম মজুরি বাড়ানোর দাবি ও বাড়িভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বেশ কয়েকদিন ধরে সাভারের আশুলিয়ায় আন্দোলন করে আসছিল পোশাক শ্রমিকরা। রোববার ও সোমবার শ্রমমন্ত্রীর আশ্বাস পাওয়ার পর একটা পক্ষ আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করলেও গতকাল মঙ্গলবার সকালে ফের আন্দোলনে নামে শ্রমিকদের বড় একটা অংশ।

এদিন সকালে শ্রমিকরা কাজ বন্ধ করে সড়কে নেমে এসে বিক্ষোভ শুরু করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

ঘটনার পরপরই বিকেলে কাওরান বাজারে বিজিএমইএ ভবনে জরুরি সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে গার্মেন্ট মালিকদের পক্ষ থেকে ৫৫ কারখানা বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, চলমান পরিস্থিতিতে কোনো শ্রমিক কারখানায় কাজ না করলে আইন অনুয়ায়ী এ সময়ের বেতন পাবে না তারা।

প্রসঙ্গত, ন্যূনতম মজুরি বাড়ানোর পাশাপাশি নানা অজুহাতে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ, কোনো কারণে ছাঁটাই হলে নিয়ম অনুযায়ী প্রাপ্য পরিশোধ এবং ছুটিকালীন বেতন বহাল রাখার দাবিতে গত সোমবার থেকে আন্দোলন শুরু করেন ওই এলাকার তৈরি পোশাক শ্রমিকরা।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ৩ বছরে সাভারের আশুলিয়া এলাকায় কোনো বাড়িভাড়া বাড়ানো হবে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, তিন বছরে ওই এলাকার কোনো মালিক বাড়িভাড়া বাড়ালে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ