বৃহস্পতিবার ০২ জুলাই ২০২০
Online Edition

আ’লীগের তিন শতাধিক সন্ত্রাসী নারায়ণগঞ্জ শহর চষে বেড়াচ্ছে

স্টাফ রিপোর্টার : ক্ষমতাসীন দলের রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতাপ্রাপ্ত তিন শতাধিক সন্ত্রাসী নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) এলাকা চষে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে কোনো নির্বাচন যে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হতে পারে না, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনেও তার সুস্পষ্ট ইঙ্গিত মিলতে শুরু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, আব্দুস সালাম আজাদ, আসাদুল করিম শাহীন তাইফুল ইসলাম টিপ, মুনির হোসেন, বেলাল আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।

রিজভী বলেন, বিএনপির পক্ষ থেকে আমি নাসিক নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু, ভয়ভীতিমুক্ত, নিরপেক্ষ, সকল ধরনের ভীতি, শঙ্কা, অস্বস্তি দূর করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। কারণ, সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ হলে সাধারণ ভোটাররা দলবেঁধে নির্বাচন কেন্দ্রে স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এমনকি আমরা নিশ্চিত সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ বিরাজমান হলে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী এ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন। তিনি বলেন, গণমাধ্যমের খবরে জানা য়ায়, ক্ষমতাসীন দলের রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতাপ্রাপ্ত তিন শতাধিক সন্ত্রাসী নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) এলাকা চষে বেড়াচ্ছে। স্থানীয় প্রশাসনের জ্ঞাতসারেই অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

নির্বাচন কমিশনের বিধি নিষেধের কারণে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগে অংশ নিতে পারেননি বলে অভিযোগ করেন রিজভী। হঠাৎ করে বহিরাগতদের প্রচারণার বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের ৭২ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দেয়ার কারণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও নজীরবিহীন উল্লেখ করে বিএনপির এ নেতা বলেন, বিগত যে কোনো নির্বাচনে ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে নির্বাচনী এলাকার বাইরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নির্বাচনী এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হতো। এটাই ছিল আইন, এটাই ছিল রেওয়াজ। কিন্তু এবার সেই সময়সীমা বাড়িয়ে ৭২ ঘণ্টা করা হলো। মূলত খালেদা জিয়া দলের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে অংশ নিলে ধানের শীষের পক্ষে আরও ব্যাপক গণজোয়ার সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা থেকেই সরকার ইসিকে দিয়ে এই পরিপত্র জারি করিয়েছে। আর এটা যে বিনাভোটের সরকারের নির্দেশেই করা হয়েছে সেটি উপলব্ধি করতে কোন ইনফরমেশন টেকনোলজির আশ্রয় নেয়ার প্রয়োজন নেই। নির্বাচন কমিশনের পক্ষপাতমূলক আচরণ সুস্পষ্ট হয়ে ওঠাতে আাগামী ২২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নাসিক নির্বাচন নিয়ে বিরোধী দল কিংবা ভোটাররা আশ্বস্ত হতে পারছেন না বলেও অভিযোগ করেন রিজভী।

বিএনপির এ নেতা বলেন, নারায়ণগঞ্জ হলো সন্ত্রাসীদের লীলাভূমি। সেখানে অস্ত্রবাজরা প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে ঘুরে বেড়াতে বা যেকোন সময় যেকোন অপরাধমূলক কর্মকান্ড চালাতে দ্বিধাবোধ করে না। নারায়ণগঞ্জের লোমহর্ষক ৭ খুন হত্যা, ত্বকি হত্যাসহ অসংখ্য খুনখারাবির ঘটনায় নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দারা সর্বদা আতংকের মাঝে বসবাস করে। এর মধ্যে নাসিক নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন দলের অস্ত্রধারীরা গোটা নির্বাচনী এলাকায় তাদের অবস্থান সুদৃঢ় করছে। একটা চাপা আতঙ্কের পরিবেশ জনমনে ভীতি সঞ্চার করে রেখেছে। জোরপূর্বক ভোটকেন্দ্র দখল, ভোট ডাকাতি, ব্যালট ছিনতাই ও সাধারণ মানুষের মধ্যে ভীতি সঞ্চারসহ আতংকিত পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে এমন খবরও আমরা নির্বাচনী এলাকায় গণসংযোগকালে প্রকাশ পেয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ