শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

গাইবান্ধায় ৪টি ট্রেন বন্ধ ॥ যাত্রীদের দুর্ভোগ

গাইবান্ধা সংবাদদাতা: গাইবান্ধায় চার বছর ধরে ৪টি ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে গাইবান্ধা, বামনডাঙ্গা, নলডাঙ্গা, কামারপাড়া, কুপতলা, ত্রিমোহনী, বাদিয়ালী, বোনারপাড়া, মহিমাগঞ্জ ও শালমারা স্টেশনসহ এ রেলপথে চলাচলকারী শিক্ষার্থী, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ীসহ হাজারো যাত্রী সীমাহীন দুর্ভোগে।
গাইবান্ধা সংবাদদাতা: গাইবান্ধায় চার বছর ধরে ৪টি ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে গাইবান্ধা, বামনডাঙ্গা, নলডাঙ্গা, কামারপাড়া, কুপতলা, ত্রিমোহনী, বাদিয়ালী, বোনারপাড়া, মহিমাগঞ্জ ও শালমারা স্টেশনসহ এ রেলপথে চলাচলকারী শিক্ষার্থী, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ীসহ হাজারো যাত্রী সীমাহীন দুর্ভোগে। বন্ধ থাকা ট্রেনগুলো হলো সান্তাহার থেকে লালমনিরহাটগামী লোকাল ট্রেন-২৮১, লালমনিরহাট থেকে সান্তাহারগামী লোকাল ট্রেন-২৮২, গাইবান্ধার বোনারপাড়া থেকে দিনাজপুরগামী ‘রামসাগর’ ট্রেন-৫৯ ও দিনাজপুর থেকে বোনারপাড়াগামী রামসাগর ট্রেন-৬০।
বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন গাইবান্ধা শাখার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনিছ মোস্তফা তোতন  বলেন, ইঞ্জিন, বগি ও চালকসহ জনবল সংকটের অজুহাতে ২০১৩ সালের শুরুতে ৪টি ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। বন্ধ হওয়া ট্রেন চলাচলের দাবিতে বিভিন্ন মহলের উদ্যোগে গাইবান্ধায় মানববন্ধন, সভা-সমাবেশ ও স্মারকলিপিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ট্রেনগুলো চালুর ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।
এদিকে, ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় প্রতিদিন এ রুটের হাজারো যাত্রী বিকল্প পথে যাতায়াত করছেন। এতে তারা সময়মতো গন্তব্যস্থলে পৌঁছতে পারছেন না। তা ছাড়া বিকল্প পথে যাতায়াতের কারণে তাদের পরিবহন খরচ বেড়ে গেছে।
গাইবান্ধা রেল স্টেশনে থাকা যাত্রী আনোয়ার হোসেন, নুরুজ্জামান সরকার ও গৃহিণী চামেলী বেগম জানান, এ রুটে চলাচলকারী ৪টি ট্রেন বন্ধ থাকায় সীমাহীন অসুবিধার মধ্যে পড়তে হচ্ছে।
গাইবান্ধা রেল স্টেশন মাস্টার মো. আবুল কাশেম সরকার বলেন, রেলওয়ে বিভাগে ইঞ্জিন, বগি ও চালাকসহ জনবল সংকটের কারণে ট্রেনগুলো বন্ধ রয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কর্তৃপক্ষ ট্রেনগুলো চালুর আশ্বাস দিয়েছেন, তবে কবে নাগাদ চালু হবে তা জানাতে পারেননি তিনি।
হঠাৎ করে বন্ধ হওয়া ট্রেনগুলো চালু হলে গাইবান্ধাসহ এ রুটের যাত্রীসাধারণের দুর্ভোগ কমে আসবে। তাই সংশ্লিষ্ট রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বন্ধ থাকা ট্রেনগুলো দ্রুত চালুর পদক্ষেপ নেবেন এমন প্রত্যাশা গাইবান্ধাবাসীর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ