সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

তুরস্কে সন্ত্রাসী হামলা বৃদ্ধিতে এরদোগানের উদ্বেগ

১৮ ডিসেম্বর, আসার্ক আল আওসান/ডিডিএনএস/ পার্স টুডে : তুরস্কে সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলা বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী রজব তৈয়ব এরদোগান। বলেন, তার দেশ বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের আক্রমণের আওতায় রয়েছে। তুরস্কের উন্নয়ন সিরিয়া এবং ইরানে যা ঘটছে তা থেকে আলাদা নয়।
গতকাল রোববার আসার্ক আল আওসানের এক প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, এরদোগান শনিবার সেনাবাহিনীর গাড়িতে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলায় ১৩ জন সেনা সদস্য নিহত এবং ৫৬ বেসামরিক নাগরিকের আহতের কথা উল্লেখ করা হয়। নিহত সেনা সদস্যদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন এরদোগান।
এরদোগান গাড়ি বোমা হামলায় সেনা সদস্য নিহতের ঘটনার জন্য কুর্দিশ জঙ্গিদের দায়ী করেছেন। তবে এই হামলার দায় এখনো কোনো পক্ষ স্বীকার করেননি।
এরদোগান এক বিবৃতিতে বলেন, আক্রমণের ধরণ এবং এর লক্ষ্য থেকে স্পষ্ট বোঝা যায়, তুরস্কের শক্তি, জ্বালানি এবং সামরিক বাহিনীকে বিভাজন করতেই বিচ্ছিন্নবাদী জঙ্গি সংগঠনগুলো এই ধরনের আক্রমণ করছে।
এরদোগান আরও বলেন, আমরা জানি আমাদের অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য এই ধরনের আক্রমণ স্বাধীন না থেকে অনুগত করার চেষ্টা করছে। বিশেষ করে ইরাক এবং সিরিয়ার উপর এই প্রচেষ্টা বেশি চলছে। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পুরো দেশের জঙ্গি হামলাগুলো চিহ্নিত করেছেন। এ সময় তিনি তুরস্কের অগ্রগতি এবং উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করার জন্য জঙ্গি সংগঠনগুলোকে সতর্ক করে দেন। এদিকে, তুরস্ককে সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে সহযোগিতা করতে নিজের প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেছে রাশিয়া। তুরস্কের মধ্যাঞ্চলীয় কাইসেরি শহরে গত শনিবার এক শক্তিশালী বোমা হামলায় এক ডজনেরও বেশি তুর্কি সেনা নিহত হওয়ার পর এ প্রস্তাব দিয়েছে মস্কো।
ওই হামলার পর রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার তুর্কি সমকক্ষ রজব তাইয়্যেব এরদোগানকে একটি টেলিগ্রাম পাঠিয়ে সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে আঙ্কারার পাশে থাকার প্রস্তাব দেন বলে রাশিয়ার গণমাধ্যম জানিয়েছে।
প্রেসিডেন্ট এরদোগানকে গত শনিবারের ঘটনায় সমবেদনাও জানান পুতিন। সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে তুরস্ক আরো বেশি আন্তরিক হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন রুশ প্রেসিডেন্ট।
শনিবারের বোমা হামলার জন্য তুর্কি সরকার কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলা গোষ্ঠী পিকেকেকে দায়ী করেছে।
তুর্কি প্রধানমন্ত্রীর দফতর এ বোমা হামলার খবর প্রকাশের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে বলেছে, যে খবর প্রকাশিত হলে বিশৃঙ্খলা ও জনমনে আতঙ্ক তৈরি হয় তা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর স্বার্থ রক্ষা করে। কাজেই এ ধরনের খবর প্রকাশ থেকে গণমাধ্যমকে বিরত থাকতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ