শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

চট্টগ্রামে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গুলী করে হত্যা

চট্টগ্রাম অফিস : প্রকাশ্য দিবালোকে চট্টগ্রামে ইব্রাহিম হোসেন মানিক (৩২) নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গুলী করে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নগরীর কোতোয়ালী থানা থেকে কয়েকশত মিটার দূরে জেনারেল পোস্ট অফিসের উল্টো দিকের রাস্তায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। নিহত মানিক নগরীর সদরঘাট বাইলেনের আবু হানিফের পুত্র। মানিক স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা বলে শোনা গেলেও মহানগর কমিটির কোন পদে আছে তা জানাতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, নিহত ইব্রাহিম মানিক পূর্ব মাদারবাড়ি স্ট্যান্ড ইউনিট ছাত্রলীগের সভাপতি, দারেগাহাট বাই লেইন ব্যবসায়ি কল্যাণ সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ‘আমরা শেখ রাসেল’র আহ্বায়ক ছিলেন। ২০১৩ সালের ১৫ নভেম্বর বিয়ে করে মানিক।

কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নূর মোহাম্মদ বলেন, রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা মানিককে গুলী করে পালিয়ে যায় ঘাতকরা। আহত অবস্থায় সদরঘাট থানার মাদারবাড়ি সাহেবপাড়া এলাকার রফিকের ছেলে মোহাম্মদ রানাকে (২৮) গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে পিস্তলের এক রাউন্ড গুলী।

কোতোয়ালী থানার ওসি জসিম উদ্দিন জানান, পিস্তলের গুলীবিদ্ধ হয়ে মানিকের মৃত্যু হয়েছে। রানা নামে একজন গুরুতরভাবে জখম হয়েছে। পালিয়ে যাওয়ার সময় ঘটনাস্থল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বলেন, ঘটনাস্থলের পেছনে সাহেবপাড়া এলাকায় একটি মুদি দোকান মানিকের দখলে ছিল। দোকানটির মালিকানা নিয়ে মোহাম্মদ রানা নামে একজনরে সঙ্গে মানিকের বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে তারা দুজনই পরস্পরের নামে পাল্টাপাল্টি মামলা করেছিল। মানিকের করা মামলায় রানা কিছুদিন আগে গ্রেফতারও হয়েছিল। ১৫ দিন আগে সে জামিনে ছাড়া পায়।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মোস্তাইন হোসেন জানান, রানাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। রানার প্যান্টে রক্তের দাগ ছিল। প্রথমে ভেবেছিলাম সেও ভিকটিম। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে বলেছে তার মামার দোকান ভাড়া নিয়ে মানিকের সঙ্গে বিরোধ ছিল। সদরঘাট এলাকায় রানার মামার দোকান ভাড়া নিয়েছিলেন মানিক। ভাড়া নিয়ে বিরোধের জেরে রানার বিরুদ্ধে সদরঘাট থানায় মামলাও হয়েছে বলে তারা জানতে পেরেছেন। তবে মানিককে কে গুলী করেছে সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা মোস্তাইন হোসেন।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম জানান, আলকরণ এলাকায় নালার পাশে গুলীবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে ছিলেন মানিক। স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কোতোয়ালী থানার এ এস আই মৃনাল কান্তি মজুমদার জানান, নিহত মানিকের লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দাফন শেষে তার পরিবার মামলা দায়ের করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ