বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

নবেম্বর মাসে রাজনৈতিক সন্ত্রাস

মুহাম্মদ ওয়াছিয়ার রহমান : নবেম্বর ছিল রাজনৈতিক সবচেয়ে শান্ত মাস। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন, জেলা পরিষদ নির্বাচন ও নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে কিছুটা তোড়জোড়। নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে বিরোধীদলগুলো এবং বুদ্ধিজীবীরা ছিল সরব। এ মাসে ১০৬টি রাজনৈতিক সন্ত্রাস সংশ্লিষ্ট তথ্যে নিহতের সংখ্যা ৯। এই ৯ জনের ৮ জন আওয়ামী লীগের হাতে এবং ছাত্রলীগের হাতে ১ জন খুন হয়। এ মাসে রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতায় প্রাপ্ত তথ্যে আহত হয় ২৩০ জন এবং গ্রেফতার অনেক বেশি হলেও ১৫০ জনের তথ্য পাওয়া গেছে বাকীদের পরিচয় প্রকাশিত হয়নি, গ্রেফতারকৃতরা অধিকাংশই বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী এবং দণ্ডপ্রাপ্ত ১৩ জন। এই ১৩ জনের আওয়ামী লীগের ৪, ছাত্রলীগের ১ এবং বিএনপির ৮ জন। প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে নবেম্বর মাসে নিহত হয়- (১) দিনাজপুর সদরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নির্যাতনে মঞ্জুরুল ইসলাম নামে এক যুবক খুন, (২) নরসিংদীর রায়পুরায় আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও পুলিশের গুলীতে মানিক মিয়া, (৩) খোকন মিয়া, (৪) মামুন মিয়া ও (৫) শাহজান নিহত হয়, (৬) নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে তারা মিয়া নামে সৈনিক লীগের সভাপতি নিহত হয়েছে, (৭) ময়মনসিংহের ত্রিশালে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সাইফুল মোল্লা নিহত হয়েছে, (৮) ঝালকাঠির রাজাপুরে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম খানকে হত্যা করেছে যুবলীগ নেতা এবং (৯) চট্টগ্রামে টেন্ডার নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা রিয়াদ খুন।
আওয়ামী লীগ : ১ নবেম্বর খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগ অফিস দখল করলো জেলা সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলমের নেতৃত্বে তার গ্রুপ। দখলের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করে জেলা সভাপতি ও এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা। ২ নবেম্বর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক মোঃ আবু আহমেদ জমাদার দুর্নীতির দায়ে আওয়ামী লীগ নেতা ও কক্সবাজারের এমপি আব্দুর রহমান বদিকে ৩ বছরের কারাদণ্ড ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৩ মাসের বিনা শ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে। ৩ কোটি ৮৪ লাখ ৩৯ হাজার ৪২৩ টাকা সম্পদ গোপন রাখার দায়ে ২০০৪ সালের দুদক আইনের ২৬ (২) ধারা মতে এ দণ্ড দেয়া হয়। ময়মনসিংহের গৌরীপুরে কালিপুর মধ্যমতরফ এলাকায় আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দলে অচিন্তপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম অন্তরকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মর্মে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতার ভাই জসিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে। ৩ নবেম্বর ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক অভিযোগ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আওয়ামী লীগের দুই নেতা নাছিরনগর উপজেলা সভাপতি রাফি ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সরকারের উস্কানিমূলক বক্তব্যে হিন্দুদের মন্দির, ঘর, বাড়ি ও সম্পত্তিতে হামলার ঘটনা ঘটাতে সাহায্য করে। উল্লেখ্য, ৩০ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাছিরনগরে হরিণবেড় গ্রামে জেলে পাড়ায় রাসুরাজ দাস নামে একজন ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে আপত্তিকর তথ্য পরিবেশন করায় এ হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নি সংযোগ হয়।
৪ নবেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাছিরনগরে নমশুদ্র পাড়ায় হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগের অভিযোগে তিন আওয়ামী লীগ নেতাকে সংগঠন থেকে সাময়িক ভাবে বহিষ্কার করেছে। বহিষ্কৃত নেতারা হলো- নাছিনগর সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হাশেম, চাপরতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সুরুজ আলী এবং হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ফারুক মিয়া। ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটির উদ্যোগে নাছিরনগর এলাকার এমপি ও মৎস্য প্রতিমন্ত্রী ছায়েদুল হকের পদত্যাগ দাবি করেছে সংগঠনটি। এ কর্মসূচি পালনকালে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহ্বুবুল আলম হানিফ সেখানে তোপের মুখে পড়ে। ঢাকার আশুলিয়ায় তৈয়বপুর শুকুর আলী মার্কেটে আওয়ামী লীগ ইয়ারপুর ইউনিয়ন সহ-সভাপতি ও ১০ কেজির চাল বিতরণের ডিলার জেহের আলী তার গোডাউনের পাশে শহীদুল জেনারেল স্টোর ও মুদি দোকানে খাদ্য অধিদপ্তরের সীলযুক্ত বস্তায় চাল কেজি প্রতি ৪০ টাকা দরে বিক্রি করছে। এমন সময় পুলিশ চালসহ তাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করেছে। জেহের আলী ছাত্রলীগ ইউনিয়ন সভাপতি ওমর ফারুকের পিতা। ৫ নবেম্বর রংপুর সার্কিট হাউজে শিক্ষা মন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদের সামনে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর আহম্মেদ হোসেনকে লাঞ্ছিত করেছে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা। রংপর বিভাগে শিক্ষার উন্নত পরিবেশ ও জঙ্গিবাদ মুক্ত শিক্ষাঙ্গন শীর্ষক সমাবেশে আওয়ামী লীগ জেলা ও মহানগর নেতাদের দাওয়াত না দেয়ায় তারা এ ঘটনা ঘটায়। রংপুরের মিঠাপুকুরে হামিদপুর পূর্বপাড়া জামে মসজিদের সোলার প্যানেল আত্মসাৎ করেছে আওয়ামী লীগ বালুয়া মাছিমপুর ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক সেলিম মিয়া। ১০ নবেম্বর বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দলে পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলমগীর শাহী সুমনের বাড়িতে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক ও এমপির আব্দুল মান্নানের ভাই জাহিদুল ইসলাম রাজু এবং তার লোকজন পর পর দুই দিন হামলা, ভাংচুর ও হত্যার হুমকি দিয়েছে।
১২ নবেম্বর চট্টগ্রামে দক্ষিণ জেলা সফর কালে সার্কিট হাউজে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সামনেই দলীয় দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি হয়। জেলা সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী ও পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি রাশেদ মনোয়ারের সমর্থকদের মধ্যে এই হাতাহাতি হয়। বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ১৯ ইউনিয়নে ১০ টাকা কেজির চাল বিতরণে ৫৩ ডিলার সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত লোকজন। ডিলাররা হলো- নিশানবাড়িয়া ইউপির গুলীশাখালী বাজারে চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহীম বাচ্চুর ছেলে তানভীর আহমেদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কলেজ কর্মচারী কামরুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা ফেরদৌস হোসেন পিয়াস, পঞ্চকরণ ইউপিতে চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতার ভাতিজা আক্তারুজ্জামান মজুমদার ও ভাগ্নে কামরুল ইসলাম এবং খাউলিয়া ইউপিতে চেয়ারম্যানের ও আওয়ামী লীগ নেতার ভাতিজা জাকির আল-মামুন ও ভায়রা জামাল ফকিরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিদের আত্মীয় স্বজন ও দলীয় লোকজন। ১৩ নবেম্বর নরসিংদীর রায়পুরায় নিলক্ষা ইউনিয়নের চার গ্রামে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আব্দুল জলিল, ফারুক, শাহ আলম, লাবিব, আদম আলী, মোমেন, খোরশেদ, আব্দুল হামিদ, সুমেদ আলী, জাহাদ আলী, লিয়াকত আলী, বশকু, শাহীন ও শফিকসহ আহত অর্ধশত। এ সময় ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এই ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা তাজুল ইসলাম এবং সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হক গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতালদের উপর হামলার পর ঘটনাস্থলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য বি.এম মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, টিপু মুন্সী এমপি, সুজিত রায় নন্দী ও রেমন্ড আরেংকে নিয়ে গঠিত প্রতিনিধি দল সেখানে পরিদর্শনে গেলে মাদারপুর গির্জার সামনে এক সমাবেশে সাঁওতালরা জানান, সেখানে স্থানীয় এমপি ও ইউপি চেয়ারম্যানের ইন্ধনে এই হামলা হয় ৬ নবেম্বর। চুয়াডাঙ্গা সদরে আওয়ামী লীগ নেতা শুকুর আলী একটা মেলার বিষয়ে বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি হাবিবুল গনির স্বাক্ষর জাল করে একটি ভুয়া আদেশ সদর থানায় নিয়ে গেলে, পুলিশের আদেশটি নিয়ে সন্দেহ হলে তারা তদন্ত করে জালের ঘটনাটি উদঘাটন করে মামলা দায়ের করে শুকুর আলীকে গ্রেফতার করে।
১৪ নবেম্বর নরসিংদীর রায়পুরায় নিলক্ষা ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন উত্তর দ্বন্দ্বে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও গুলীতে মানিক মিয়া, খোকন মিয়া, মামুন মিয়া ও শাহজান নিহত এবং পুলিশসহ অন্তত পঞ্চাশ জন আহত হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হক গ্রুপ এবং বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম গ্রুপের মধ্যে তিন দিন ধরে সংঘর্ষ চলে আসছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে তারা পুলিশের উপর ককটেল ও টেঁটা নিক্ষেপ করে। আহতরা হলো- ওসি আজহারুল ইসলাম সরকার, এসআই আসাদুজ্জামান, এসআই জিয়াউর রহমান, এএসআই তোফাজ্জল হোসেন, মাসুদুর রহমান, কনস্টেবল সাইদুর রহমান ও জিল্লুর রহমানসহ পঞ্চাশজন। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত তেরো জনকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশে গুলী করেছে বলে পুলিশ দাবি করেছে। নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ মঙ্গলখালী এলাকায় বালু ব্যবসা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলীবিদ্ধ হয়ে সৈনিক লীগের সভাপতি তারা মিয়া নিহত ও অপর বিশ জন আহত হয়েছে। তারা মিয়া গ্রুপ ও আইউব মিয়া গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে নয়ন মিয়া, সুমন, হোসেন মিয়া, সুরুজ মিয়া, আকাশ, পাপ্পু, খোকন, আনোয়ার হোসেন, ফাতেমা, মাসুদা বেগম, পলি আক্তার, আফসানা আক্তার ও রহিমা বেগমসহ উভয় পক্ষে বিশ জন আহত হয়। পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।
১৬ নবেম্বর ময়মনসিংহের ত্রিশালে বালিপাড়ায় আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সাইফুল মোল্লা নামে একজন নিহত ও পাঁচ পুলিশসহ পনের জন আহত হয়েছে। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বালিপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম মোহাম্মদ বাদল এবং ইউনিয়ন যুবলীগ আহ্বায়ক আব্দুল বারী গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, ভাংচুর ও লুটপাট হয়। সংঘর্ষে আহত হয় আজিজুল মোল্লা, তার ভাই আব্দুল হাই মোল্লা, ভাতিজা হুমায়ুন মোল্লা, আব্দুল বাতেন, এমদাদ, হেলাল উদ্দিন, মোর্শেদুল, আনোয়ারুল হক ও ইউনুস আলীসহ পনের জন। ৩১ অক্টোবর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে সংঘর্ষ ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। লক্ষ্মীপুর কমলনগরে চরকালকিনি এলাকায় প্রতিবন্ধী হারুণের ভাতার টাকা আত্মসাৎ করেছে আওয়ামী লীগ উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম চৌধুরী। বরিশালের আগৈলঝাড়ায় বাঘদা ইউনিয়নে নাঘিরপাড়া বাজারে ১০ টাকা মূল্যের চাল বিতরণের ডিলার ও ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি বেলায়েত সরদার চাল পরিমাণে কম দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীরা। ১৮ নবেম্বর নরসিংদীর রায়পুরায় আওয়ামী লীগের সদ্য ঘোষিত কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা এ্যাডঃ রিয়াজুল কবীর কাউছারের আগমন উপলক্ষে দোয়ার অনুষ্ঠানে দলীয় প্রতিপক্ষের বাধা ও এমপি রাজিউদ্দিন রাজুর উপস্থিতিতে প্রশাসনের ১৪৪ ধারা জারির কারণে অফিসে ঢুকতে না পেরে ঢাকায় ফিরে গেলেন। ১৯ নবেম্বর শরীয়তপুরের জাজিরায় আওয়ামী লীগের স্থানীয় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে বিশজন আহত। পুলিশ সেখান থেকে আট জনকে গ্রেফতার করেছে। জাজিরা পৌর আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সাত্তার বেপারী এবং সাবেক উপজেলা যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবু ফকিরের সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষে ককটেল বিস্ফোরণ ও বাড়ি-ঘর ভাংচুর করা হয়। আহতরা হলো- রেহানা বেগম, সুমন, জহির, হৃদয়, জাফর, নবুয়াত সেলিম, রানা, জিয়া, সোহেল বেপারী, ফজল ফকির, আবু ফকির, বাদশা ঢালী ও সোনা মিয়া ফকিরসহ বিশজন।
২১ নবেম্বর ঠাকুরগাঁওয়ে হরিপুর উপজেলার ভাতুরিয়ায় এমপি ও আওয়ামী লীগ নেতা দবিরুল ইসলামের জনসভায় উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের উত্তেজনায় মঞ্চ ভাংচুর করা হয়, ফলে জনসভাটি পণ্ড হয়ে যায়। মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় কমিটি গঠন নেয়ে আওয়ামী লীগ দুই শিবিরের বিভক্ত। দুই শিবিরে নেতৃত্বে দেয় উপজেলা সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এ. কে.এম সফি আহমেদ সালমান। ২২ নবেম্বর ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে পলাশ চন্দ্র সাহা অভিযোগ করেন দাগনভূঞায় আমানুল্লাহপুরে সংখ্যালঘুদের বাড়ি দখল করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন মামুন। ২৩ নবেম্বর রংপুরের গঙ্গাচড়ায় কে.এন.বি বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি পদে নির্বাচনের জন্য ভোটারগণ উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের কক্ষে উপস্থিত হলে ভোটাররা ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি নূরুজ্জামানকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে। সে সময় নেহাল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মজমুল হোসেন সুরুজ জোর করে ভোটারদের নিকট হতে অস্ত্রের মুখে সভাপতির পদটি লিখে নেয়। এ সময় সুরুজের লোক মারফুল, বাদল ও স্বাধীনের নেতৃত্বে নূরুজ্জামন ও অন্যদের মারধর করে। ২৪ নবেম্বর ফরিদপুরের নগরকান্দায় আটাইল বাজারে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে মহিলাসহ পনের জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষে আহতরা হলো-সলেমান মাতুব্বর, খোরশেদ মাতুব্বর, সিরিয়া বেগম, শেখ সেলিম, বিকুল ও ফিরোজসহ পনের জন। ২৬ নবেম্বর পিরোজপুর শহরে নিজ বাসার অদূরে আওয়ামী লীগের জেলা সাধারণ সম্পাদক ও এমপি এ. কে.এম আব্দুল আউয়ালের গাড়ি বহরে হামলা ও ভাংচুর করেছে দলীয় প্রতিপক্ষ গ্রুপ। তাদের হামলায় আহত হয় তিনজন। মনির সিকদার, সোহেল শেখ, সোহেল ও আব্দুস সালামসহ বেশ কয়েক জনের পৃথক হামলায় স্বরূপকাঠিতে আহত হয় শেখ আবির হোসেন। গাজীপুরের শ্রীপুরে উদয়খালী গ্রামে শিক্ষক আলী মুনসুর মানিকের জমি দখল করতে গিয়ে আওয়ামী লীগের নয় নেতা গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো-আব্দুল কাইয়ুম, রতন, মামুন, সাইফুল, হুমায়ুন কবীর, শাহাদাত, রফিক, জয়নাল আবেদীন ও শামসুল আলম।  [চলবে]

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ