মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

নক আউট পর্বে নাপোলি বেনফিকা শীর্ষে আর্সেনাল

নয়জনের বেসিকটাসকে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লীগে শেষ ১৬’তে তাদের যেতে দেয়নি ডায়নামো কিয়েভ। সেই সুযোগে গ্রুপ -বি  থেকে শীর্ষ দুই দল হিসেবে শেষ ১৬ নিশ্চিত করে ফেলেছে নাপোলি ও বেনফিকা। অন্যদিকে প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইকে হটিয়ে গ্রুপ -এ’র শীর্ষ দল হিসেবেই নক আউট পর্ব নিশ্চিত করেছে আর্সেনাল। লিসবনে হোসে ক্যালিয়ন ও ড্রিয়েস মারটেনসের দ্বিতীয়ার্ধের দুই গোলে বেনফিকাকে ২-১ গোলে হারিয়ে নাপোলি ১১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকেই শেষ ১৬’তে উঠেছে। রাওল জিমেনেজের শেষ মুহূর্তের গোলে দুইবারের সাবেক ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়ন বেনফিকাকে গ্রুপ রানার্স-আপ হিসেবেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে। গ্রুপের আরেক ম্যাচে বেসিকটাস ইউক্রেন সফরে গিয়েছিল অনেকটা ফুরফরে মেজাজেই। কিন্তু তুরস্কের চ্যাম্পিয়নদের প্রথমার্ধের হতাশাজনক পারফরমেন্সের সুযোগে ডায়নামো কিয়েভ বড় জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে। অলিম্পিক স্টেডিয়ামে আরটেম বেসেডিনের ৯ মিনিটের গোলেই এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ডারলিস গঞ্জালেজকে কঠিন চ্যালেঞ্জ করায় ২৯ মিনিটে আন্দ্রেস বেককে মাঠ ত্যাগ করতে হয়েছে। এই ফাউল থেকে আদায় করা পেনাল্টি থেকে আন্দ্রি ইয়ারমোলেনকো ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। বিরতির আগে ভিটালি ও পারাগুয়ান আরো দুটি গোল করলে ডায়নামো বড় জয়ের ইঙ্গিত দেয়। ৫৬ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারণে ক্যামেরুনের স্ট্রাইকার ভিনসেন্ট আবুবকর মাঠ ত্যাগ করলে বেসিকটাস ৯ জনের দলে পরিণত হয়। ৬০ ও ৭৭ মিনিটে শেরি সাইডোরচাক ও জুনিয়র মোরাসেস স্কোরশিটে নাম লেখালে বেসিকটাসের ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ হয়। লুকাস পেরেজের হ্যাটট্রিকে আর্সেনাল সুইজারল্যান্ডে বাসেলকে ৪-১ গোলে পরাজিত করে ফ্রেঞ্চ চ্যাম্পিয়ন পিএসজিকে টপকে গ্রুপ -এ’র শীর্ষ দল হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। ৮, ১৬ ও ৪৭ মিনিটে পেরেজ দলের পক্ষে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন। ৫৪ মিনিটে মেসুত ওজিলের সহায়তায় এ্যালেক্স ইওবি দলের পক্ষে চতুর্থ গোল করেন। ৭৮ মিনিটে সেইডু ডোম্বিয়া স্বাগতিকদের পক্ষে সান্তনাসূচক একটি গোল শোধ করেন। এদিকে পার্ক ডি প্রিন্সেসে বুলগেরিয়ান দল লুডোগোরেটসের সাথে ২-২ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে পিএসজি। কিন্তু  গ্রুপের তৃতীয় দল জিসেবে লুডোগোরেটস ইউরোপা লীগে জায়গা করে নিয়ে চ্যাম্পিয়নস লীগে অংশগগ্রহণ স্মরণীয় করে রাখলো। বাসস।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ