বৃহস্পতিবার ০৬ আগস্ট ২০২০
Online Edition

এবার চীনকে একহাত নিলেন ট্রাম্প

৫ ডিসেম্বর, বিবিসি : যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন নীতি ভঙ্গ করে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সরাসরি টেলিফোনে কথা বলার পর চীন তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিল। এবার ট্রাম্প চীনকেই একহাত নিলেন। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে চীনের সমালোচনা করে একাধিক পোস্ট করেন। টুইটগুলোতে ট্রাম্প দক্ষিণ চীন সাগর নিয়ে বেইজিংয়ের নীতি ও কর্মসূচিগুলোর সমালোচনা করেছেন। টুইটে ট্রাম্প বলেছেন, চীন যদি তাদের মুদ্রার মান কমানো কিংবা বড় ধরনের সামরিক কমপ্লেক্স বানাতে চায়। আর তখন যদি এসব বিষে আমাদের সম্মতি আছে কি না জানতে চায়, তাহলে আমার মনে হয় উত্তর না বোধক হবে। গত শুক্রবার ১৯৭৯ সাল থেকে চলে আসা মার্কিন নীতি লঙ্ঘন করে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েনের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প। ‘এক চীন নীতি’-র প্রতি সমর্থন জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ১৯৭৯ সালে তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। তবে মার্কিন প্রশাসন তাইওয়ানের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিকভাবে সম্পর্ক বজায় রাখে।
গত রোববার ইংরেজি ভাষায় প্রকাশিত রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম ‘চায়না ডেইলি’তে প্রকাশিত এক সম্পাদকীয় ভাষ্যে এক প্রতিক্রিয়ায় বলা হয়, ‘এটা আদতে তার (ট্রাম্পের) অন্তবর্তী দলের অনভিজ্ঞতা ছাড়া আর কিছুই না।’ এরআগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোন করায় তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েনের তীব্র সমালোচনা করে চীন। চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং হি সাইয়ের ফোন করাকে ‘পাতি কর্মকা-’ বলে উল্লেখ করেন।
একটি শিক্ষা বিষয়ক ফোরামে রাখা বক্তব্যে ওয়াং বলেন, “এখানে কেবল তাইওয়ানের পক্ষ থেকেই পাতি কর্মকা- ঘটানো হয়েছে। আর এর ফলে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে ‘এক চীন নীতি’-র কোনও পরিবর্তন হবে না। আমি বিশ্বাস করি, আপন এর ফলে বহুদিন ধরে চলে আসা মার্কিন সরকারের ‘এক চীন নীতি’-র কোনও পরিবর্তন আসবে না।” ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এই খবর জানিয়েছে।
ওই ফোরামে ওয়াং জানান, ট্রাম্প নির্বাচনে জয়ী হওয়ার অল্প সময়ের মধ্যেই চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তাকে ফোন করে অভিনন্দন জানান। তখন ট্রাম্প চীনকে ‘মহান দেশ’ বলেও প্রশংসা করেন বলে ওয়াং উল্লেখ করেন। ওয়াং আরও বলেন, ট্রাম্প ও শি জিনপিং-এর কথায় চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও উন্নতির আভাস পাওয়া যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ