সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

রুশ গোয়েন্দা প্রধানের গোপনে পাকিস্তান সফর

৩০ নবেম্বর, টাইমস অব ইসলামাবাদ : পাকিস্তানে একেবারে গোপনে সফর করলেন রাশিয়ার কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিসের প্রধান আলেকজান্দার বোগদানোভ। চলতি মাসের গোড়ার দিকে লোকচক্ষুর অগোচরে তিনি পাকিস্তান সফর করেছেন তিনি। যদিও গোয়েন্দা প্রধানের পাকিস্তান সফর ঘিরে কেউ কোনো মন্তব্য করতে চাননি ইসলামাবাদের কর্মকর্তারা। গত মঙ্গলবার পাকিস্তানের একটি ইংরেজি দৈনিক এমনটাই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছে। দুই দশকের বেশি সময় পর এই প্রথম পাকিস্তানে সফর করলেন কোনো রুশ গোয়েন্দা প্রধান। ফলে তার এই গোপন সফর ঘিরে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা।
জানা গেছে, রুশ গোয়েন্দা প্রধান পাকিস্তানে সফরের সময়ে গোয়াদার বন্দর ঘুরে দেখেন। বিশ্ব মঞ্চে রাশিয়া পুনরায় নামতে শুরু করেছে। রুশ নৌবাহিনীর দীর্ঘ সমুদ্র ভ্রমণের সময়ে গোয়াদার বন্দর ব্যবহারের সম্ভবনা খতিয়ে দেখতে ওই এলাকা পরিদর্শন করেন বোগদানোভ বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে, কাকতালীয়ভাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচিত হওয়ার পরই এই সফর করেন তিনি। অবশ্য তার এই সফরের কর্মসূচি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেই নির্ধারণ করা হয়েছিল বলে মনে করা হচ্ছে।
এ ছাড়া, আফগান পরিস্থিতি নিয়ে মস্কোয় আগামী মাসে রাশিয়া, চিন এবং পাকিস্তানের  বৈঠকের আগেই এই সফর করেন তিনি। সফরকালে চিন পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর বা সিপিইসি’তে আনুষ্ঠানিক ভাবে রাশিয়ার যোগ দেওয়ার বিষয়ে বোগদানোভ আলোচনা করেছেন বলেও জানা গিয়েছে। চিনের সঙ্গে আগে সমন্বয় না করে এই নিয়ে ইসলামাবাদের সঙ্গে মস্কো আলোচনা করবে না বলেই পাকিস্তানের বিশ্লেষকরা মনে করছেন।
পাকিস্তান-রাশিয়ার প্রতিরক্ষা চুক্তি : প্রস্তাবিত চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর (সিপিইসি) নিয়ে ইসলামাবাদের সঙ্গে গোপন আলোচনার কথা বাতিল করে দিয়েছে রাশিয়া। তবে দেশটি পাকিস্তানের সাথে কৌশলগত প্রতিরক্ষা চুক্তি করতে চায়। রাশিয়ার বিদেশ মন্ত্রণালয়ের পক্ষে বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে সিপিইসিতে রাশিয়ার যোগদান নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। বেশ কয়েক দিন ধরেই পাকিস্তানি গণমাধ্যমে এই ‘গোপন’ আলোচনা নিয়ে খবর প্রকাশিত হচ্ছে। ৪ হাজার ৬০০ কোটি ডলারের এই প্রকল্পে অংশিদার হয়ে রাশিয়া নাকি গওদার উপকূলের উষ্ণ পানি পেতে চায়।
এই নিয়ে ইসলামাবাদে রাশিয়ার দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘পাকিস্তানের সঙ্গে আমাদের ব্যবসা এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতার আলাদা মূল্য রয়েছে। আমরা এই সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। করাচি থেকে লাহোর পর্যন্ত গ্যাস পাইপ লাইন বসানোর কাজে রাশিয়ার কোম্পানিগুলো কাজ করছে। দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ভিত্তিতেই এই কাজ হচ্ছে।’ পাকিস্তানের সঙ্গে কৌশলগত প্রতিরক্ষা চুক্তি করতে চায় রাশিয়া তাও জানানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ