শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

খুলনায় বৃক্ষমানবের পর এবার আলু মানবের সন্ধান

খুলনা অফিস : খুলনার পাইকগাছায় বৃক্ষমানবের পর এবার আব্দুর রাজ্জাক গাজী (৫৫) নামের এক আলু মানবের সন্ধান পাওয়া গেছে। আব্দুর রাজ্জাকের দুই হাত-পাসহ সমস্ত শরীরে আলুর মতো গুটি গুটি সৃষ্টি হয়েছে। গত ৪০ বছর যাবৎ তিনি জটিল এ রোগে ভুগছেন। অনেক ডাক্তার, কবিরাজ দেখানোর পরও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় চিকিৎসার আশা ছেড়ে দিয়েছেন আব্দুর রাজ্জাক ও তার পরিবার।
জানা গেছে, পাইকগাছা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বান্দিকাটি গ্রামের মৃত বছির গাজীর ছেলে। আব্দুর রাজ্জাক গাজীর ১৫ বছর বয়সে শরীরে গুটি গুটি দেখা দেয়। যা স্থানীয় অনেক ডাক্তার এবং কবিরাজকে দেখানো হয়। কিন্তু এ রোগের কোন প্রতিকার হয় না বরং গুটি গুটি বস্তুগুলো ধীরে ধীরে সমস্ত শরীরে ছড়িয়ে পড়ে এবং আলুর মতো আকার ধারণ করে। বর্তমানে শরীরের এমন কোন স্থান নাই যেখানে এ ধরনের গুটি নাই।
এ ব্যাপারে আব্দুর রাজ্জাক গাজী জানান, ১৫ বছর বয়সে আমার শরীরে গুটি গুটি দানা সৃষ্টি হয়। যা এখন শরীরের সমস্ত জায়গা জুড়ে নিয়েছে। ছোটকালে পিতা মারা যাওয়ার কারণে ভাল কোন ডাক্তার দেখাতে পারিনি এবং ওই সময় উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা সহজলভ্য ছিলনা। ফলে স্থানীয় কবিরাজের শরণাপন্ন হয়। এতে রোগ নিরাময় না হয়ে আরো বাড়তে থাকে। এ রোগে গত ৪০ বছর যাবৎ ভুগছি। এখন চিকিৎসার আশা ছেড়েই দিয়েছি।
এ ধরনের গুটি শরীরে কি ধরনের প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে এমন প্রসঙ্গে তিনি জানান, গরমের সময় শরীরে কোন কাপড় রাখা যায় না। খালি শরীরে ভাল লাগে শীত কালে হালকা কাপড় ব্যবহার করা গেলেও খালি শরীরে রোদে থাকতে ভাল লাগে। এমন রোগ প্রসঙ্গে রোগীকে না দেখে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি পাইকগাছা মেডিকেল অফিসার মশিউর রহমান মুকুল।
উল্লেখ্য, এর আগে পাইকগাছা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড সরল গ্রামে আবুল বাজনদার নামে এক বৃক্ষমানবের সন্ধান পাওয়া যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ