মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

মোহামেডানের ত্রাহী অবস্থা

স্পোর্টস রিপোর্টার : জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে আবারো পরাজয়ের স্বাদ পেলো ঐতিহ্যবাহী ক্লাব ঢাকা মোহামেডান। মতিঝিল পাড়ার ক্লাবটির এখন সম্পদ শুধুই জার্সীর রং। যে দলটির ফুটবল ইতিহাস একসময় সমৃদ্ধ ছিলো সেই দলের এখন ত্রাহী অবস্থা। সাদাকালো জার্সী গায়ে যারা একসময় মোহামেডানের হয়ে খেলেছেন তাদের মুখে এখন শুধুই হতাশা। কর্মকর্তাদের অদক্ষতার মাশুল গুনতে হচ্ছে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটিকে। কোন ফুটবল মৌসুমে দলের এতটা বিপর্যয় হয়নি। সমর্থক প্রিয় যে দলটি বরাবরই ছিলো শিরোপার লড়াইয়ে, এখন তাদের রেলিগেশন এড়ানোর প্রতিযোগিতা করতে হচ্ছে। যা ব্যথিত করছে সমর্থকদের। কারন চলমান প্রিমিয়ার লিগে একের পর এক পরাজয়ে ক্লান্ত ঢাকা মোহামেডান। সর্বশেষ চার ম্যাচ আগে জিতেছিল তারা। এরপর জয়ের দেখা নেই। ফলে ড্র আর হারের ফাঁদে পড়ে এখন টেবিলের তলানীর দিকেই ঠাই নিয়েছে ঐতিহ্যবাহী দলটি। গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ২-০ গোলে হারায় সাদা কালোদের। এই জয়ে ১৬ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট পেয়ে দু’ধাপ এগিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা। সপ্তম স্থান থেকে তারা উঠে এসেছে পঞ্চম স্থানে। অন্যদিকে সমান ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে দশম অবস্থানেই থাকলো মোহামেডান।
ম্যাচের শুরু থেকে শেষ অবদি সুযোগ এসেছিলো মোহামেডানের। কিন্তু সেই সুযোগগুলো কাজে লাগাতে ব্যর্থ হওয়ায় গোলের দেখা মেলেনি সাদা কালো শিবিরে। তবে ম্যাচের চার মিনিটে সেটপিস থেকে এগিয়ে যায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। বক্সের কিছুটা দূর থেকে মিডফিল্ডার সোহেল রানার দর্শনীয় ফ্রি কিক সাদা-কালোদের রক্ষণ দেয়াল টপকে সরসরি জালে আশ্রয় নেয় (১-০)। ২০ মিনিটে প্রায় ফাঁকায় বল পেয়েও ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেছেন মুক্তিযোদ্ধার রনি। পরের মিনিটে গোলের আরেকটি সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন ইসমাইল বাঙ্গুরা। একের পর সুযোগ হাতছাড়া করলে গোলের দেখা মিলবে কিভাবে। ৬৭ মিনিটে মুক্তিযোদ্ধার গোলকিপারকে মামুন খানকে ওয়ান টু ওয়ান পজিশনে পেয়েও সুযোগ হাতছাড়া করেন ইসমাইল বাঙ্গুরা। তবে ম্যাচে অসংখ্য গোলের সুযোগ থেকে দক্ষতার সঙ্গে সাদা-কালোদের বঞ্চিত করেন এই গোলকিপার। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে রনির স্কয়ার পাসে বক্সে বল পেয়ে ঠান্ডা মাথায় বুদ্ধিদ্বীপ্ত শটে মোহামেডানের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন বিপুল (২-০)। ম্যাচে ফেরার আর সুযোগ হয়নি সাদা-কালোদের। ফলে হার নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ঐতিহ্যবাহীরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ