সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাও করার হুমকি ঢাবি শিক্ষার্থীদের

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার : মিয়ানমারের আরাকান ও রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনী কর্তৃক চলমান মুসলিম সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের উপর বর্বর হামলা, খুন, নারী-শিশু ধর্ষণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। চলমান এই বর্বরতায় মুসলিম সংখ্যালঘুদের নির্যাতনে কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় শান্তিতে নোবেল জয়ী অং সাং সু চি’ নোবেল বাতিলের দাবি জানিয়েছে তারা। একই সাথে মুসলিমদের উপর নির্যাতন বন্ধ না হলে বাংলাদেশে অবস্থিত মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাও করার হুমকিও দিয়েছে তারা। 

গতকাল সোমবার সকাল ১১টায় সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। মানববন্ধনে প্রায় সহস্রাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। ঢাবি শিক্ষার্থী তাসনিম আফরোজ ইমি বলেন, যে বিশ্ববিদ্যালয় একটি রাষ্ট্রের জন্ম দিয়েছে, সে বিশ্ববিদ্যালয় কখনো মানবতার অবমাননা সহ্য করতে পারে না। মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ন্যায্য অধিকার প্রদান, অভিবাসী রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়া এবং বাংলাদেশে তাদের আসতে বাধ্য করার বিরুদ্ধে এই আন্দোলন দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত চালিয়ে যাওয়া উচিত বলে তিনি জানান। 

মানববন্ধনের অন্যতম আহ্বায়ক তোফায়েল হুসাইন বলেন, বিশ্ব গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিয়ানমারের মুসলিম হত্যার চিত্র অমানবিক। কোনো ধর্মেই মানুষ হত্যার কথা বলেনি। অথচ মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যা করা হচ্ছে। 

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শত শত শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এ সময় মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের নির্যাতন ও হত্যা বন্ধ না করলে বাংলাদেশে অবস্থিত মিয়ানমারে দূতাবাস ঘেরাওয়েরও হুমকি দেয় তারা। তারা রোহিঙ্গাদেরকে স্থায়ীভাবে মিয়ানমারে বসবাস করার সুযোগ দেওয়ার জন্য জাতিসংঘসহ সকল মানবাধিকার সংগঠনগুলোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের মুসলিম অধ্যুষিত রাখাইন প্রদেশের গ্রামগুলোতে গত ৯ অক্টোবরের পর অন্তত ৬৯ জনকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে দেশটি সেনাবাহিনী। জাতিসংঘের মতে, মিয়ানমারের ১১ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলিম বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত সম্প্রদায়গুলোর একটি। ২৫ বছরের দীর্ঘ সামরিক শাসনের অবসান ঘটিয়ে গত বছরের ৮ নবেম্বর দেশটিতে প্রথম গণতান্ত্রিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ক্ষমতায় আসে শান্তিতে নোবেল জয়ী অং সাং সুচি’র দল এনএলডি। ক্ষমতায় এসে রোহিঙ্গাদের বিপক্ষেই অংশ নেন সুচি। এতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের কাছে বিতর্কিত হয়ে উঠছেন সুচি ও  তার নেতৃত্বাধীন দল এনএলডি। এমনকি অনেকেই সু চির নোবেল ফিরিয়ে নেওয়ার দাবি তুলেছেন নোবেল কমিটির কাছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ