রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১
Online Edition

বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুল কাইয়ুমের ইন্তিকাল

খুলনা অফিস ঃ খুলনা মহানগর নাগরিক ফোরামের চেয়ারপারসন বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুল কাইয়ুম (৬৬) ইন্তিকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। বুধবার রাত সাড়ে ১০টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ফুসফুসের জটিল ক্যান্সারে ভুগছিলেন। চলতি বছরের শুরুতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি ভারতে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। এরপর গত ১০ নবেম্বর বৃহস্পতিবার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। এখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তিকাল করেন। 

এদিকে, আব্দুল কাইয়ুমের মৃত্যুর খবর পেয়ে হাসপাতাল ও তার বাসায় যান মুক্তিযোদ্ধা, আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

অপরদিকে বৃহস্পতিবার যোহরবাদ নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে মরহুমের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। পরে টুটপাড়া কবরস্থানে তাকে দাফন দেয়া হয়। এর আগে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। সেখানে মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুল কাইয়ুমের প্রতি সর্বস্তরের মানুষের শেষ শ্রদ্ধা জানান। 

এদিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুল কাইয়ুমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন-খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান এমপি, মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা আবুল কালাম আজাদ ও সেক্রেটারি অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা, প্রেসক্লাব খুলনার সভাপতি আসিফ কবীর ও মহাসচিব এহতেশামুল হক শাওন, মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন খুলনার সভাপতি মো. আনিসুজ্জামান, সহ-সভাপতি এহতেশামুল হক শাওন, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল হাসান হিমালয়, কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রানা। অনুরূপ বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন বিএফইউজের নির্বাহী সদস্য এহতেশামুল হক শাওন, সাবেক সহ-সভাপতি ড. মো. জাকির হোসেন, সাবেক নির্বাহী সদস্য শেখ দিদারুল আলমসহ খুলনা জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টি, সিপিবিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ