বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১
Online Edition

ক্ষমতাসীনরা বিপন্ন বোধ করেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করে -রুহুল কবির রিজভী 

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী) আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য পেশ করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ক্ষমতাসীনরা নিজেদের বিপন্ন মনে করে বলেই বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা দায়ের করছে এবং গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করছে। 

গতকাল বৃহস্পতিবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির নিন্দা জানিয়ে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক আলোচনায় রিজভী এ মন্তব্য করেন। আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান মো. আজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে আরো বক্তব্য দেন লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, এনপিপির চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, কৃষক দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাজাহান মিয়া সম্রাট প্রমুখ।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন,এক ধরনের হীনতা, এক ধরনের প্রতিহিংসা, সেই প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে এ মামলা দেওয়া ও গ্রেফতারি পরোয়ানা। যিনি মামলা দিয়েছেন, উনি কিন্তু একজন ব্যক্তি নন বা আওয়ামী লীগের সমর্থক নন, তিনি রাষ্ট্রপর্যায়ের সর্বোচ্চ জায়গায় যিনি আছেন, তাঁর নির্দেশেই এ মামলা করেছেন। নইলে এ মামলা করার কথা নয়।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পারোয়ানা, আওয়ামী লীগ শাসন আমলের সমাপ্তি হলে কালো অধ্যায় হিসেবে লিপিবদ্ধ থাকবে ।

বিএনপির দফতরের দায়িত্বে থাকা এই নেতা বলেন, সরকার দেশকে জঙ্গিবাদী দেশে পরিণত করতে চেষ্টা করছে। আমরা এক অদ্ভুত দেশে বসবাস করছি। যে কোনো ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও শাসকগোষ্ঠী রক্ত চক্ষু দিয়ে ভয় দেখিয়ে তাদের ইচ্ছা মতো চালাচ্ছে। ইসলাম আর জঙ্গিবাদকে তারা একাকার করে দিয়েছে। ১৫ আগস্ট জন্মদিন পালনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গতকাল গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।ঢাকা মহানগর হাকিম মাজহারুল ইসলাম এ পরোয়ানা জারি করেন।

চলতি বছরের ৩১ আগস্ট একই আদালতে মামলাটি করেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন একাংশের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী জহিরুল ইসলাম। ওই দিন বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে সমন জারি করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী দুলাল মিত্র জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার মামলাটি আদেশের জন্য রাখা হয়েছিল। খালেদা জিয়া আদালতে হাজির না হওয়ায় বিচারক গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করা গেল কিনা, সেই প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী বছরের ২ মার্চ পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ