মঙ্গলবার ০২ মার্চ ২০২১
Online Edition

মনে হচ্ছিল আমি আর কখনই বাসা থেকে বের হবো না- হিলারি

সংগ্রাম ডেস্ক : মাকিন নির্বাচনে হেরে হশাতাই প্রকাশ করেছেন ডোমোক্রেট দলীয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন। বলেন, মনে হচ্ছিল আমি আর কখনোই বাসা থেকে বের হবো না।
স্থানীয় সময় বুধবার রাতে ওয়াশিংটন ডিসিতে শিশুদের দাতব্য সংস্থা মারিয়ান রাইট এডেলমেনের একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এই কথা বলেন হিলারি। ট্রাম্পের কাছে ইলেক্টোরাল কলেজের ভোটে পরাজিত হওয়ার পর এটি তার প্রথম বক্তব্য। সিএনএন, বিবিসি।
তিনি বলেন, এই নির্বাচন অনেকটা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের আত্মার খোঁজের মত ছিল। নিজের মানসিক অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, আজ রাতে এখানে আসা আমার জন্য সহজ ছিল না। গত কয়েক সপ্তাহ এমন কিছু সময় ছিল, যখন আমি ভাল কিছু বইয়ের মধ্যে ডুবে থাকতে চেয়েছি। কোনভাবেই বাসা থেকে বের হতে চাইনি। মনে হচ্ছিল, আমি আর কখনই বাসা থেকে বের হব না। কিন্তু তাই বলে নিজ সমর্থকদের আশাহত না হবার অনুরোধ জানান হিলারি।
হিলারি আরো বলেন, আমি জানি, আপনারা অনেকই আশাহত হয়েছেন। আমিও হয়েছি, আমার থেকে বেশি এই হতাশা আর কার হতে পারে? আমি জানি এটা সহজ নয়। আমি জানি গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আপনারা অনেকেই ভেবেছেন, আমেরিকা বলতে আমরা যা বুঝি, আসলেই এটা সেই আমেরিকা কিনা। নির্বাচন যত নিকটে এসেছে এই বিভক্তি তত বেড়েছে। কিন্তু অনুগ্রহ করে আরো একবার আমার কথা শুনুন। আমেরিকা খুবই মূল্যবান। আমাদের সন্তানরা খুবই মূল্যবান। নিজের দেশের ওপর বিশ্বাস রাখুন। নিজেদের মূল্যবোধ টিকিয়ে রাখতে যুদ্ধ করুন। কখনও হাল ছাড়বেন না।
হিলারির চেহারায় স্পষ্ট হেরে যাওয়ার হতাশার ছাপ। বক্তব্যেও বিষয়টি না লুকিয়ে সরাসরি জানালেন, নির্বাচনের পর আমি চেয়েছিলাম ভাল কিছু বইয়ের মধ্যে মুখ ডুবিয়ে থাকতে।
নির্বাচনে ডেমোক্রেট এই প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে পপুলার ভোটে এখনো এগিয়ে আছেন। একটি রাজ্যের ফলাফল ঘোষণা করা না হলেও বলা যায়- গণভোটে বিজয়ী হিলারি ক্লিনটন। কিন্তু প্রেসিডেন্ট হতে হলে জয় পেতে হয় ইলেক্টোরাল কলেজের ভোটে। জর্জ ডব্লিুউ বুশের কাছে এই ইলেক্টোরাল ভোটেই হেরে গিয়েছিলেন আল গোর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ