শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

সাফ উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ ডিসেম্বরে শিলিগুড়িতে

স্পোর্টস রিপোর্টার : দক্ষিণ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (সাফ) উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৪ জানুয়ারি ভারতের শিলিগুড়িতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। উইমেন্স সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের এবারের আসরে ও আমন্ত্রিত দল হিসেবে অংশ নেবে আফগানিস্তান। আজ ১০ নবেম্বর বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে টুর্নামেন্টে এন্ট্রি। ‘আফগানিস্তান ইতোমধ্যেই খেলবে বলে নিশ্চিত করেছে। ভুটান ছাড়া অন্য দলগুলো এন্ট্রি করেছে বলেই জানালেন সাফ সেক্রেটারি আনোয়ারুল হক হেলাল। তিনি জানালেন, সাফের কার্যক্রমে গতি আনতে সভাপতি কাজি সালাউদ্দিনের নেতৃত্ব বর্তমান কমিটি সাফের টুর্নামেন্ট বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে। এক সময় শুধু ‘সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ’ আয়োজন করেই দায়িত্ব শেষ করতেন দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবল কর্মকর্তারা। এখন ছেলেদের বয়স ভিত্তিক দুটি টুর্নামেন্ট হচ্ছে। মেয়েদের জাতীয় দল ভিত্তিক টুর্নামেন্টও চালু হয়েছে। সাফ চাইছে আরও টুর্নামেন্ট বাড়াবে। যার অন্যতম বহুল আলোচিত সাফ ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ।
সাফ সেক্রেটারি আনোয়ারুল হক হেলাল জানালেন, ‘২০১৮ সাল থেকে ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ এক বছর পর পর হবে। আমরা এক বছর আয়োজন করবো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ, পরের বছর সাফ ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ। পরবর্তী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ হবে বাংলাদেশে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে।’ সাফ এখন মোট চারটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করে। এ সংখ্যা আরও বাড়াতে যাচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবল সংস্থাটি। নতুন টুর্নামেন্টের মধ্যে ক্লাব কাপ ছাড়াও থাকবে ছেলে ও মেয়েদের তিনটি বয়স ভিত্তিক টুর্নামেন্ট। ‘এখন মেয়েদের শুধু সিনিয়র দলের টুর্নামেন্ট হয়। ফিফা কার্যক্রমের সঙ্গে সমন্বয় করে অনূর্ধ্ব-১৬ ও অনূর্ধ্ব-১৯ দুটি টুর্নামেন্ট আয়োজনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। ছেলেদের অনূর্ধ্ব-১৬ ও অনূর্ধ্ব-১৯ টুর্নামেন্ট হচ্ছে। পাশাপাশি অনূর্ধ্ব-১৪ টুর্নামেন্টও আছে আমাদের পরিকল্পনায়’-বলেছেন সাফ সেক্রেটারি।
সাফের সদস্য ছিল ৮টি। আফগানিস্তান এ সংস্থা থেকে বেড়িয়ে চলে গেছে মধ্য এশিয়ায়। তবে এ দেশটি সাফের টুর্নামেন্ট খেলতে আগ্রহী। ‘ভারতের কেরালয় অনুষ্ঠিত সর্বশেষ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ আমন্ত্রিত দল হিসেবে খেলেছে আফগানিস্তান। তিনি ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপের দল প্রসঙ্গে বলেন, ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ ৮ দল নিয়ে আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। যদি সাফের বাইরের কোনো দেশের ক্লাবকে আমন্ত্রণ করা হয়, সেক্ষেত্রে প্রতি দেশের শীর্ষ লিগের চ্যাম্পিয়ন দল অংশ নেবে। তা নাহলে স্বাগতিক দেশের দুটি অন্য ৬ সদস্য দেশের একটি করে দল খেলবে সাফের প্রথম ক্লাব ভিত্তিক টুর্নামেন্টে। উল্লেখ্য সাফের এখন অফিসিয়াল মার্কেটিং সংস্থা নাগাডিয়ার। এক সময় সাফের সঙ্গে ছিল ওয়ার্ল্ড স্পোর্টস গ্রুপ (ডব্লিউএসজি)। এ কোম্পানিকে কিনে নিয়েছে ফরাসি ভিত্তিক মার্কেটিং সংস্থা নাগাডিয়ার। তারা শুধু সিনিয়র সাফ টুর্নামেন্টে স্পন্সরের ব্যবস্থা করে। আগামীতে সাফের যত টুর্নামেন্ট হবে সবগুলো নাগাডিয়ার হাতে তুলে দেয়ার চেষ্টা হচ্ছে বলেও জানালেন আনোয়ারুল হক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ