শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

১৮৭ বছরের রেকর্ড ভাঙতে পারবেন ট্রাম্পের স্ত্রী মেলানিয়া?

৭ নভেম্বর, ইন্টারনেট : ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন, তাহলে তার স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প হবেন ১৮৭ বছরের মধ্যে প্রথম কোনো ফার্স্ট লেডি, যিনি বিদেশে জন্মগ্রহণ করেছেন।
মিসেস ট্রাম্প হওয়ার আগে তার নাম ছিল মেলানিয়া নেভস। স্লোভেনিয়ার শেভনিকার বাসিন্দা। তখন অবশ্য দেশটির নাম ছিল যুগোশ্লাভিয়া। জন্ম ১৯৭০ সালের এপ্রিলে। ২০০১ সালে তিনি আমেরিকা আসেন আর ২০০৬ সালে মার্কিন নাগরিকত্ব পান।
প্রথম ফ্যাশন ফটোগ্রাফার স্টেইন জের্কোর নজরে আসেন মেলানিয়া। তিনি জানিয়েছেন, প্রথম নজর দেখেই আমি বুঝতে পারি, ফটোগ্রাফির জন্য তার চমৎকার একটি চেহারা রয়েছে। সেই সময় আমি একটি ফ্যাশন শো’র প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। মেলানিয়ার অনেক ছবি তোলেন জের্কো। সেই ছবি শ্লোভেনিয়ার বেশ কয়েকটি ম্যাগাজিনে ছাপাও হয়। পুরোদস্তুর মডেলিং শুরু করেন মেলানিয়া।
কিন্তু ফ্যাশন ম্যাগাজিনে মেলানিয়ার ছবি দেখে তার মা তাকে বাডেিত নিয়ে আসেন। তবে সেই সময় মেলানিয়া আরো বড় কিছুর স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন। বুঝতে পারেন, এই ছোট শহরটি তার জন্য নয়। প্রথমে এইচ-১বি ভিসা ১৯৯৬ সালে আমেরিকা আসেন মেলানিয়া। পরে একজন মডেল হিসাবে একবছর মেয়াদি ওয়ার্ক ভিসায় কয়েকবার আমেরিকায় আসেন এবং ২০০১ সালে গ্রিন কার্ড পান।
১৯৯৮ সালে নিউইয়র্কে একটি ফ্যাশন উইকের অনুষ্ঠানে প্রথম ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে মেলানিয়ার দেখা হয়। ২০০৪ সালে এনগেজমেন্টের পর ২০০৫ সালে তারা বিয়ে করেন। সেই বিয়েতে হাজির ছিলেন বিল এবং হিলারি ক্লিনটনও।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ