শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

টুঙ্গিপাড়ায় আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির প্রথম বৈঠক আজ

স্টাফ রিপোর্টারঃ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির প্রথম সভা আজ মঙ্গলবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর আগে কখনো আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির পূর্ণাঙ্গ সভা গোপালগঞ্জে হয়নি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৬ নবেম্বর টুঙ্গিপাড়ায় যাওয়ার কথা ছিলো। সেই হিসাবে পূর্বপ্রস্তুতিও নেওয়া হয়েছিলো। দুযোর্গপূর্ণ আবাহওয়ার কারণে তার সেই সফরসূচি স্থগিত করা হয়, পরে তা নির্ধারণ করা হয় আজ ৮ নবেম্বর। 

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় কার্যনিবার্হী কমিটির বৈঠক ৮ নবেম্বর নির্ধারিত ছিল। সেই হিসাবে প্রথম বৈঠকের দিন পরিবর্তন করা সম্ভব নয়। এই কারণে ৮ নবেম্বর কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকের দিনও ঠিক রাখা হয়। সেই হিসাবে মঙ্গলবার বৈঠক হচ্ছে টুঙ্গিপাড়ায়।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আমরা ঢাকা থেকে সকাল সাতটায় রওয়ানা হয়ে যাবো। সেখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানো হবে। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি আলাদা আলাদা করে শ্রদ্ধা নিবেদেন করবেন। মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে মধাহ্ন ভোজের পরে কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠক শেষ হওয়ার পর আমরা আবার সন্ধ্যার দিকে গোপালগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেব।

আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে মঙ্গলবার সকালে গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় পৌঁছাবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি সমাধিস্থলে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। তার সঙ্গে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন আওয়ামী লীগের নব-নির্বাচিত কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যরা। বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি দোয়া-মাহফিলে অংশ নেবেন নেতারা। দুপুর ২টায় টুঙ্গীপাড়ায় আওয়ামী লীগ নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের প্রথম যৌথসভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ, উপদেষ্টা পরিষদের সব সদস্যকে কর্মসূচিতে উপস্থিত হওয়ার পাশাপাশি বৈঠকে অংশ নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, এবারই একেবারে কমিটির সবাই যাচ্ছেন। সেখানে যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে যাচেছ এটাও একটু ব্যতিক্রম। কারণ আওয়ামী লীগের এর আগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহীর কোন বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়নি। একটা নতুন অভিজ্ঞতার পাশাপাশি এক সঙ্গে দুটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করারও একটি উদাহরণ তৈরি হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ