বুধবার ০৩ জুন ২০২০
Online Edition

নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার ব্যাপারে আমি আত্মবিশ্বাসী -মুস্তাফিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার : ইনজুরির কারণে ঘরের মাঠে আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড সিরিজে ছিলেন না মুস্তাফিজুর রহমান। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘোষিত প্রাথমিক দলে আছেন মুস্তাফিজ। আপাতত তার লক্ষ্য নিউজিল্যান্ড সিরিজ। আর সে কারণেই নিজেকে পুরোপুরি ফিট করে তুলতে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি। ইনজুরিতে থেকে ফিরতে শেষ ধাপের পুনর্বাসনে আছেন মুস্তাফিজুর রহমান। তার ফেরার মূল লড়াইটা শুরু হয়েছে ১ নবেম্বর থেকে। আপাতত একদিন পর  মুস্তাফিজকে বোলিং করার নির্দেশনা দেয়া আছে। ওই নির্দেশনা মেনেই বোলিং করছেন তিনি। গতকাল তৃতীয় দিনের মতো বোলিং করার কথা ছিল তার, কিন্তু বৃষ্টির কারণে শেষ পর্যন্ত বোলিং করা সম্ভব হয়নি। মুস্তাফিজ বলেন, ‘খুব ভালোভাবেই চলছে। গতকাল শনিবার ৫ ওভার বোলিং করার কথা ছিল। কিন্তু বৃষ্টির কারণে বোলিং করা হয়নি। আগের চেয়ে এখন অনেক উন্নতি হয়েছে। ধীরে ধীরে আগের অবস্থায় ফিরে আসছি।’ মুস্তাফিজের উন্নতি দেখে সন্তুষ্ট টিম ম্যানেজমেন্ট সহ ফিজিও-ট্রেনাররা। আর তাই তো আগামী মাসে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ঘোষিত ২২ জনের স্কোয়াডে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। নির্বাচকরাও তার প্রতি আস্থা রেখেছেন। কারণও আছে, নিজেকে ফিরে পেতে যে রীতিমতো পরিশ্রম করে যাচ্ছেন মুস্তাফিজ। তিনি বলেন, ‘আশা করি এর মধ্যেই পুরোপুরি ফিট হয়ে যেতে পারব। তারপরও বিষয়গুলো ফিজিও-ট্রেনার, যারা আছেন তারাই ভালো বলতে পারবেন। দুটো সিরিজ পর সুযোগ পেয়েছি. ভালো তো লাগবেই। তবে এই বিষয়ে আর কিছু বলতে চাই না।’ বাংলাদেশ যখন আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে দুটি সিরিজ খেলতে ব্যস্ত ছিল, ওই সময় মুস্তাফিজ ব্যস্ত ছিলেন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার সঙ্গে। খেলতে না পারায় ভীষণ মিস করেছেন দুটি সিরিজ। এচা নিয়ে মুস্তাফিজ বলেন, ‘মিস তো অবশ্যই করেছি। বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলতে না পারাটা  মিসই বল।’ মুস্তাফিজের বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ফিজিও বায়েজেদুল ইসলাম বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড সিরিজের কথা মাথায় রেখেই তাকে নিয়ে পরিকল্পনা করা হচ্ছে। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে, তাহলে ছয় সপ্তাহ পর সে ভালো কন্ডিশনে থাকবে। এখানে শুধু বোলিংয়ের দিকেই খেয়াল রাখলে হবে না, অন্য কোথাও কোনও সমস্যা হচ্ছে কিনা সেদিকেও নজর রাখতে হবে। আশা করি তার উন্নতিটা বেশ ভালোভাবেই হবে। সব মিলিয়ে আমরা আশাবাদী।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ