শুক্রবার ০৫ জুন ২০২০
Online Edition

নিউজিল্যান্ডে খেলা বিশ্বকাপ আমাদের আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে -সাকিব

স্পোর্টস রিপোর্টার : আগামী ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ দল খেলবে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ। এবারের নিউজিল্যান্ড সফর নিয়ে আত্মবিশ্বাসী সাকিব আল হাসান। আত্মবিশ্বাসের অবশ্য কারণও আছে। গত বছর অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ওই কন্ডিশনে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছে। সাকিবের বিশ্বাস ওখানেই। গতকাল সকালে আগারগাঁওয়ের এলজিইডি ভবনের সম্মেলন কক্ষে লিংক পেন’স শুভেচ্ছা দূত হিসেবে চুক্তি সাক্ষর অনুষ্ঠানে সাকিব এই সফর নিয়ে বলেন, ‘আগে বিদেশ সফরে গেলে আমরা ভয়ে থাকতাম। কেমন করি এটা নিয়ে চিন্তা থাকতো। বিশ্বকাপে ভালো খেলায় আমাদের আত্মবিশ্বাস বেড়েছে। পেসারররা খুব ভালো করছে। স্পিন-পেস দুটি বিভাগেই ভালো হচ্ছে। আশা করি সামনে ভালো কিছুই হবে।’ ২২ সদস্যের প্রাথমিক দল দুই সপ্তাহের জন্য অনুশীলন ক্যাম্প করবে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। নিউজিল্যান্ড সফরের আগে অস্ট্রেলিয়ায় ক্যাম্প হওয়ায় প্রস্তুতিটা ভালো হবে বলে মনে করছেন সাকিব। এই প্রস্তুতি নিয়ে সাকিব বলেন ‘ওখানে (নিউজিল্যান্ড) আমাদের জন্য সহজ হবে না। তাই প্রস্তুতি ভালো হওয়া উচিত। নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়ায় আমাদের ক্যাম্প খুব কাজ দেবে। আশা করি ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে পারবো।’
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট জয়কে সাকিব দেখছেন এভাবে, ‘এটা তো কেবল শুরু। সামনে এমন দিন আরো আসবে। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জয় এটা।’ আগামী ৯ ও ১০ ডিসেম্বর ১০ দিনের ক্যাম্পে অস্ট্রেলিয়া যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ৯ ডিসেম্বর বিপিএলের ফাইনাল হওয়ার কারণে পুরো দলটি একসঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছে না। ফাইনালে খেলা দুটি দলের ক্রিকেটাররা (যারা স্কোয়াডে আছেন) ১০ ডিসেম্বর অস্ট্রেলিয়ার বিমান ধরবেন। ২০১৫ বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে প্রস্তুতি ক্যাম্প করেছিল বাংলাদেশ দল। যার ফল পেয়েছিল বিশ্বকাপে। আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ডকে হারানোর পর ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় করে দেয় বাংলাদেশ। পরবর্তীতে নিউজিল্যান্ডে স্বাগতিক দলের বিপক্ষে আশা জাগিয়েও শেষ মুহূর্তে জয়বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ। প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে ভারতের বিপক্ষে ‘বিতর্কিত’ ম্যাচ হারে বিশ্বকাপ মিশন শেষ হয় বাংলাদেশের। ফলে এবার নিউজিল্যান্ড সফর নিয়ে মোটেও চিন্তিত নয় বাংলাদেশ দল। ২৬ ডিসেম্বর ক্রাইস্টচার্চে ওয়ানডে দিয়ে শুরু হবে সিরিজ। পরের দুটি ওয়ানডে যথাক্রমে ২৯ ও ৩১ ডিসেম্বর নেলসনে। ওয়ানডের পর আগামী বছরের ৩ জানুয়ারি নেপিয়ারে প্রথম টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ৬ জানুয়ারি মাউনগানুইতে। একই মাঠে ৮ জানুয়ারি হবে তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি। এরপর ১২ জানুয়ারি ওয়েলিংটনে শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। ২০ থেকে ২৪ জানুয়ারি দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট ক্রাইস্টচার্চে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ