সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

অন্যায়কারী যেই হোক বিচারের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির বিধান করতে হবে -মিয়া গোলাম পরওয়ার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরে একজন হিন্দু যুবক কর্তৃক ফেসবুকে পবিত্র কাবা শরীফ অবমাননার ঘটনাকে কেন্দ্র করে হিন্দুদের মন্দিরে, বাড়ি-ঘরে এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ও হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুরে হিন্দুদের মন্দিরে এবং গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার রঘুনাথপুরের কোটাবাড়ি দুর্গামন্দিরে দুর্বৃত্তদের হামলা-ভাংচুরের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারী জেনারেল ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর, হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর ও গোপালগঞ্জ সদরে হিন্দুদের, বাড়ি-ঘরে এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্বৃত্তদের হামলার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক।

গতকাল মঙ্গলবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, স্থানীয় প্রশাসন কাবা শরীফ অবমাননাকারী ব্যক্তির বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করলে এ ধরনের দুঃখজনক ঘটনা এড়ানো যেত। প্রশাসনের উদাসীনতার কারণেই এমন দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। কারোরই আইন নিজের হাতে তুলে নেয়া উচিত নয়। আইনের শাসনের প্রতি সকলেরই শ্রদ্ধা থাকা উচিত। আইনের শাসনের প্রতি শ্রদ্ধা ফিরিয়ে আনতে হলে সরকারের উচিত আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা। অন্যায়কারী যেই হোক তাকে অবশ্যই বিচারের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির বিধান করতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতির দেশ। এ দেশে সকল ধর্মের মানুষ সুখে-শান্তিতে সম্প্রীতির সাথে যুগ যুগ ধরে বসবাস করে আসছে। কিন্তু ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে হীন স্বার্থে কিছু দুর্বৃত্ত সম্প্রদায়িক-সম্প্রীতি নষ্টের অপচেষ্টা চালিয়ে থাকে। কাজেই ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে এমন কোন আচরণ করা থেকে সকলেরই বিরত থাকা উচিত।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর, হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর ও গোপালগঞ্জ সদরে হিন্দুদের মন্দিরে, বাড়ি-ঘরে ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্বৃত্তদের হামলার ঘটনার সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ তদন্ত করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারী ব্যক্তিসহ দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ